বাগেরহাটে  সরকারী  ২৫০০ টাকার তালিকার অনিয়ম, ৪০ জনের নামের পাশে  ১ মেম্বারের নাম্বর।

প্রকাশিত: ১২:১৫ অপরাহ্ণ, মে ১৯, ২০২০
137 Views

মোঃসোলায়মান শেখ, বিশেষ প্রতিনিধি-বাগেরহাটঃএই মহামারী করোনার কারণে সংকটে পড়া অসহায় দারিদ্র্য পরিবারগুলোকে নগদ আড়াই হাজার টাকা করে দিয়েছেন সরকার।

বাগেরহাটের জেলার শরণখোলা উপজেলায় খোন্তাকাটা ইউনিয়নের একটি ওয়ার্ডে এই টাকা আত্মসাতের জন্য অভিনব পন্থার অভিযোগ উঠেছে। ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার (মোঃ রাকিব হাসান) ১০০ ব্যক্তির তালিকার নামের ভেতরে ৪০ ব্যক্তির নামের সঙ্গে নিজের মোবাইল নম্বর দিয়েছেন ঐ মেম্বার।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তালিকা চেক করার সময় এই বিষয়টি তার নজরে আসে, পরে তিনি মেম্বার রাকিবের দেওয়া সেই তালিকা আটকে দেন ঐ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, পরবর্তীতে সংশোধন করে দরিদ্র মানুষের মোবাইল নম্বর দেওয়া হয়েছে।

এবিষয়ে সাংবাদিকরা জানতে চাইলে মেম্বার (মোঃ রাকিব হোসন) বলেন ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ের তথ্য কর্মকর্তা তালিকা টাইপ করার সময় আমার নাম্বর দিয়েছেন।

কেন তিনি দিয়েছেন আমিও বুঝতে পারছি না।’

২ নম্বর ওয়ার্ড থেকে ১০০ জনের নামের তালিকাঃ দিয়েছিলেন মেম্বার রাকিব তালিকা দেওয়ার পর সেগুলো উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওই এলাকার প্রাইমারি শিক্ষকদের দিয়ে চেক করান, কোথাও আবার একই মোবাইল নাম্বর দেওয়া হয়েছে কিনা নতুন করে যাচাই করতে বলেন। তখন মেম্বার মোঃ (রাকিব হোসেনের) মোবাইল নাম্বর ৪০টি নামের সঙ্গে পাওয়া যায়।

এরপর সেই তালিকা আটকে দেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সর্দার (মোস্তফা শাহিন)

তিনি বলেন আমি প্রতিটি তালিকা প্রাইমারি স্কুলের শিক্ষকদের দিয়ে চেক করিয়েছি, তারা তালিকার ভেতরে মেম্বারদের নাম্বর পেলে সেগুলো বাদ দেওয়া হয়েছে, যখনই বিষয়টি আমরা জানতে পেরেছি তখনই মেম্বারদের মোবাইল নাম্বর বাদ দিয়ে নতুন তালিকা ওয়েবসাইটে আপলোড করেছি।

তিনি আরও বলেন দুই একজন ধনী ব্যক্তির নামও এসেছিল এই তালিকায় সেগুলোও আমরা বাদ দিয়েছি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সর্দার (মোস্তফা শাহিন) বলেন প্রথমে আমাদের সিদ্ধান্ত ছিল যাদের মোবাইল নাম্বর নেই, তারা নিকটআত্মীয় বিশ্বস্ত বা মেম্বারের নাম্বর দিতে পারবে। তবে পরবর্তীতে সিদ্ধান্ত হয়েছে মেম্বারদের নাম্বর দিতে পারবেন না।

আমি চেয়ারম্যানদের নির্দেশনা দিয়েছিলাম যাতে সঠিক ব্যক্তিরা এই ২৫০০ টাকা সহায়তা পায়, সেভাবেই করার চেষ্টা করেছেন তারা।

শরণখোলা উপজেলা থেকে ১৩ হাজার ৬৫৩ জনের নামের তালিকা দেওয়া হয়েছে। তারা সাহায্য পেতে শুরু করেছেন বলেও জানান তিনি।

করোনার কারণে সারাদেশের ক্ষতিগ্রস্ত প্রায় ৫০ লাখ হতদরিদ্র পরিবারকে এককালীন আড়াই হাজার টাকা করে দেওয়ার জন্য এক হাজার ২৫৭ কোটি টাকা বরাদ্ধ দিয়েছেন অর্থ মন্ত্রণালয়।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ১৩ মে ২০ ইং এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।

ইতিমধ্যে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলো এই অর্থ পাওয়া শুরু করেছে,১৮-১৯ মের মধ্যে নগদ বিতরণ সম্পন্ন হবে বলে জানা তিন।