বাউফলে তেঁতুলিয়া নদীর কড়াল গ্রাসে ২ দিনে অর্ধশতাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসহ ঘরবাড়ি বিলিন

প্রকাশিত: ৫:৪৯ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৪, ২০২০
160 Views

পটুয়াখালী প্রতিনিধি:
পটুয়াখালী বাউফলের তেঁতুলিয়া নদীর কড়াল গ্রাসে অর্ধশতাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসহ ঘরবাড়ি বিলিন হয়েগেছে। শুক্রবার দিবাগত রাত থেকে শনিবার রাত পর্যন্ত উপজেলার ধুলিয়ে ইউনিয়নের লঞ্চঘাট এলাকায় ওই ঘটনাটি ঘটেছে। প্রত্যক্ষদর্শী মহিবুল ইসলাম মান্না হাওলাদার জানান, তেঁতুলিয়া নদীর অব্যহত ভাঙ্গনের শিকার হচ্ছে ধুলিয়া ইউনিয়নবাসী। গত ২দিনে প্রায় অর্ধশত বাড়ি ঘর, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান,আবাদি জমি নদী গর্ভে চলে গেছে। নদীতে চিরতরে হারিয়ে যাচ্ছে কোটি কোটি টাকার সম্পদ। ভাঙ্গনের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে ভাসমান পরিবারের সংখ্যা। ওই সব পরিবারের মাথা গোঁজার ঠাই মিলছে আসে পাশের গ্রামের সড়কের পাশে। শুক্রবার দিবাগত রাত থেকে শনিবার রাত পর্যন্ত তেঁতুলিয়া নদীর তীব্র ভাঙ্গনে ধুলিয়া লঞ্চ ঘাট এলাকায় সুমন গাজী, বিকাশ রায়, স্বপন মিস্ত্রি, কৃষ্ণ দাস, রতন রায়, নয়ন গাজীসহ একই ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের নতুন বাজার এলাকায় পান্নু মোল্লা বাড়ির ৫টি ঘর ও একটি মসজিদ নদী গর্ভে বিলীন হয়েছে। এ ছাড়াও ধুলিয়া দাখিল মাদ্রাসা এক তৃতীয়াংশ নদী গর্ভে চলে গেছে। ইতিমধ্যে মাদ্রাসা টিনসেট ভবনের বাকি অংশ সরিয়ে নেয়া হয়েছে। ওই এলাকার মানুষ এখন নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছে। পটুয়াখালী জেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের একটি সূত্র জানায়, গত ১৮ আগস্ট একনেকের এক সভায় বাউফলের ধুলিয়া লঞ্চ ঘাট থেকে বাকেরগঞ্জের দূর্গাপাশা পর্যন্ত ভাঙ্গন রোধে জিওবির অর্থায়নে ৭শ ১২ কোটি ২১ লাখ টাকা বরাদ্ধ হয়। চলতি বছর জুন থেকে ২০২২ সালের জুনের মধ্যে এই প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য অনুমোদন রয়েছে। স্থানীয়রা এই দ্রুত এই প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে অনুরোধ জানিয়েছেন।