প্রবাসীকে মারধরের মামলায় সাংবাদিকের ৬ মাসের কারাদন্ড !

প্রকাশিত: ১০:২৭ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২০, ২০২০
150 Views
সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি :
সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজেলায় এক কুয়েত প্রবাসীকে মারধরের মামলায় স্থানীয় সাংবাদিক এনামুল কবির মুন্নাকে ৬ মাসের কারাদন্ড  প্রদান করেছেন সুনামগঞ্জ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তৃতীয় আদালত।
মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) দুপুরে এই রায় প্রদান করেন জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তৃতীয় আদালতের বিচারক শুভদীপ পাল। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মামলার বাদী পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ মানিক। দন্ডপ্রাপ্ত এনামুল কবির মুন্না স্থানীয় বিভিন্ন পত্রিকা ও অনলাইনে কাজ করেন।
আদালত ও মামলা সূত্রে জানা যায়, দোয়ারাবাজার উপজেলার সুরমা ইউনিয়নের বরকতনগর গ্রামের মো. গোলাম হোসেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত নন কমিশন অফিসার। তিনি দীর্ঘদিন ধরে কুয়েতে চাকুরি করেন। গত ২০১৯ সালের ৪ জানুয়ারি তিনি ছুটি নিয়ে বাংলাদেশে আসেন। প্রবাসী গোলাম হোসেন বাড়িতে পৌছার আগেই ঘটনার দিন সন্ধ্যায় পূর্ব বিরোধের জের ধরে মহব্বতপুর বাজারে সামনে মহব্বতপুর গ্রামের বাসিন্দা স্থানীয় সাংবাদিক এনামুল কবির মুন্নাসহ চার-পাঁচজন লোক তাকে লোহার রড ও লাটি দিয়ে মারধর করেন। এসময় মারধরকারীরা প্রবাসী গোলাম হোসেনে কাছে থাকা স্বর্ণালংকার, ৮টি দামী মোবাইল সেট, ২০০ কুয়েতি দিনারসহ ৭ লাখ টাকার মালামাল ছিনিয়ে নেয়। খবর পেয়ে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করেন। মারধরে আঘাতপ্রাপ্ত গোলাম হোসেন প্রথমে দোয়ারাবাজার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পরে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে চিকিৎসা গ্রহণ করেন। এঘটনায় ২০১৯ সালের ১০ জানুয়ারি দন্ডপ্রাপ্ত এনামুল কবির মুন্নাও একই গ্রামের আফিজ আলী, আশিক আলী ও মোস্তফা মিয়াসহ চারজনেক আসামীকে করে দোয়ারাবাজার থানায় মামলা দায়ের করেন প্রবাসী মো. গোলাম হোসেনের স্ত্রী মোছা. ফাতেমা বেগম। পুলিশ মামলার অভিযোগপত্র দাখিল করেন। দীর্ঘ শুনানী শেষে আদালত আজ মঙ্গলবার এনানুল কবির মুন্নাকে ৬ মাসের কারাদন্ড প্রদান করেন এবং মামলার অন্য তিন আসমীকে খালাস দেন।