প্রধানমন্ত্রীকে কৃতজ্ঞতা জানিয়ে দক্ষিণ সুনামগঞ্জে সমাবেশে উন্নয়নের স্বার্থে সকলকে  এক থাকতে হবে- পরিকল্পনা মন্ত্রী

প্রকাশিত: ৯:২৪ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১১, ২০২০
358 Views
আল হাবিব, সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি :
পরিকল্পনা মন্ত্রী এমএ মান্নান এমপি বলেছেন,’প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হাওরের মানুষকে ভালবাসেন, তিনি হাওরের উপর দিয়ে উড়াল সড়ক করে মানুষের জীবন মানের উন্নয়ন ঘটাতে চান। আমরা কেবল ধন্যবাদ বা কৃতজ্ঞতা নয়, প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করতে হবে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী সাধারণ মানুষের জন্য কাজ করেন, আমরা তাঁকে অনুসরণ করি। তিনি বলেন, উন্নয়নের স্বার্থে সুনামগঞ্জের সকল মানুষকে এক থাকতে হবে। কোন আঞ্চলিকতা নয়, সুনামগঞ্জ শহর থেকে স্থাপনায় স্থাপনায় আমরা শান্তিগঞ্জ-পাগলায় যুক্ত করতে চাই। আমরা সুনামগঞ্জি, এটাই আমাদের বড় পরিচয়, একতাবদ্ধ থাকবেন, কোন উস্কানিতে কেউ কান দেবেন না। বেঁচে থাকলে বদলে দেব সুনামগঞ্জকে।
বুধবার (১১নভেম্বর) দুপুরে জেলার দক্ষিণ সুনামগঞ্জের শান্তিগঞ্জ মোড়ে ছাত্র-জনতার বিশাল সমাবেশে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেবাার সময় তিনি এমন মন্তব্য করেন।
সুনামগঞ্জের শিক্ষার্থীদের উচ্চ শিক্ষার সুযোগ প্রসারিত করার উদ্যোগ নেওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পরিকল্পনা মন্ত্রী এমএ মান্নানের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে সর্বস্তরের ছাত্র-জনতার ব্যানারে এই সমাবেশের আয়োজন করা হয়।
সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন শিক্ষাবিদ ও আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুর রউফ। সমাবেশে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান নূর হোসেন, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রয়েল আহমদসহ জেলার ১১ উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকগণ বক্তব্য দেন।
পরিকল্পনা মন্ত্রী বলেন, সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার যেখানে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ হচ্ছে, সারা জেলার মানুষের সুবিধাজনক স্থান এটি। সুনামগঞ্জ-সিলেট সড়কের যে স্থানে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থান নির্বাচন করে প্রস্তাব করা হয়েছে, সেটিও সকলের মধ্যবর্তী স্থানে এবং সবচাইতে উঁচু জমি। স্থান নিয়ে বিভাজনের কোন সুযোগ নেই। তিনি বলেন, সুনামগঞ্জ হাওর ও কৃষি নির্ভর জেলা এখানে কৃষি ইনস্টিটিউট, মাছ সুরক্ষার জন্য নানা ধরণের প্রকল্প আমরা শীঘ্রই গ্রহণ করবো। ছাতক-সুনামগঞ্জ রেল লাইন হবে। তিনি সকলের কাছে প্রধানমন্ত্রীর জন্য দোয়া চেয়ে তিনি দীর্ঘ জীবন লাভ করলে দেশের কোন অঞ্চলের মানুষ অবহেলিত থাকবে না।
সমাবেশে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ ও জগন্নাথপুর উপজেলার প্রত্যন্ত এলাকা থেকে মিছিল সহকারে এসে হাজার হাজার মানুষ যোগদান করেন। জেলার অন্য উপজেলা থেকে মিছিল সহকারে আসেন ছাত্র-জনতা।