নকলায় ২৯২০ কৃষকের মাঝে বিনামুল্যে সরিষা বীজ ও রাসায়নিক সার বিতরণ শুরু

প্রকাশিত: ৯:৩৭ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১১, ২০২০
48 Views

মো. মোশারফ হোসাইন, শেরপুর প্রতিনিধি:

শেরপুর জেলার নকলা উপজেলায় ২০২০-২১ অর্থ বছরের রবি মৌসুমে সরিষা উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে কৃষি প্রণোদনা ও পুনর্বাসন কর্মসূচির আওতায় ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক ২ হাজার ৯২০ কৃষকের মাঝে সরিষা বীজ ও রাসায়নিক সার বিনামূল্যে বিতরণ কাজ শুরু করা হয়েছে। এ উপলক্ষে ১১ নভেম্বর বুধবার দুপুরের দিকে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরাধীন নকলা উপজেলা কৃষি অফিসের ব্যবস্থাপনায় উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গনে বীজ ও রাসায়নিক সার বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) জাহিদুর রহমানের সভাপতিত্বে ও উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার কৃষিবিদ শেখ ফজলুল হক মনির সঞ্চালনায় এ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহ মো. বোরহান উদ্দিন এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপজেলা আওয়মী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা শফিকুর ইসলাম জিন্নাহ, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সারোয়ার আলম তালুকদার, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মোছা. ফরিদা ইয়াসমিন, উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ পরেশ চন্দ্র দাসসহ অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ রোকসানা নাসরীন, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মো. শহিদুল ইসলাম ও  উপজেলা কৃষকলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুল মন্নাফ খান প্রমুখ।

এসময় জেলা পরিষদের সদস্য ছানোয়ার হোসেন  ছানু, উপসহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা ফকির মোহাম্মদ মোয়াজ্জেম হোসেনসহ উপজেলায় কর্মরত বিভিন্ন দপ্তর প্রধানগন, উপজেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত কৃষক-কৃষানী, আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, কৃষকলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও স্থানীয় সাংবাদিকগন উপস্থিত ছিলেন।

উপজেলা কৃষি অফিসের তথ্য মতে, গনপদ্দী ইউনিয়নের ৩০ জন কৃষক প্রণোদনার আওতায় ও ২৫০ জন পুনর্বাসন কর্মসূচির আওতায়, নকলা ইউনিয়নের ৬০ জন প্রণোদনার ও ২৫০ জন পুনর্বাসন কর্মসূচির, উরফা ইউনিয়নের ৭৫ জন কৃষক প্রণোদনার ও ২৫০ জন পুনর্বাসন কর্মসূচির, গৌড়দ্বার ইউনিয়নের ২৫ জন কৃষক প্রণোদনার ও ২০০ জন পুনর্বাসন কর্মসূচির, বানেশ্বরদী ইউনিয়নের ৪০ জন কৃষক প্রণোদনার ও ২৫০ জন পুনর্বাসন কর্মসূচির, পাঠাকাটা ইউনিয়নের ২০ জন কৃষক প্রণোদনার ও ২৫০ জন পুনর্বাসন কর্মসূচির, টালকী ইউনিয়নের ৩০ জন কৃষক প্রণোদনার ও ২০০ জন পুনর্বাসন কর্মসূচির, চরঅস্টধর ইউনিয়নের ২০ জন কৃষক প্রণোদনার ও ২৫০ জন পুনর্বাসন কর্মসূচির, চন্দ্রকোনা ইউনিয়নের ৭০ জন কৃষক প্রণোদনার ও ৩০০ জন পুনর্বাসন কর্মসূচির এবং পৌরসভার ৫০ জন কৃষক প্রণোদনার ও ৩০০ জন কৃষক পুনর্বাসন কর্মসূচির আওতায় সুবিধাভোগী হিসেবে বাছাই করা হয়েছে। তবে এসকল সুবিধাভোগী বাছাইয়ে কৃষি অফিসকে সার্বিক সহায়তা করেছেন ইউপি চেয়ারম্যান ও পৌরসভার মেয়রসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকগন, এমনটাই জানালেন সুবিধাভোগী অনেক কৃষক-কৃষাণী।

উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ পরেশ চন্দ্র দাস-এর দেয়া তথ্য মতে, প্রতি কৃষকের একবিঘা করে জমিতে সরিষা আবাদের জন্য এক কেজি করে উন্নত মানের সরিষা বীজ, ১০ কেজি করে ডাই-এ্যামোনিয়াম ফসফেট (ডিএপি) ও ১০ কেজি করে মিউরেট অব পটাশ (এমওপি) সার বিতরণ করা হয়। এতে প্রতি কৃষকের মাঝে বর্তমান বাজার অনুযায়ী ২৭০ টাকার আর্থিক মূল্যে উপকরণ বিতরণ করা হয়। তিনি বলেন, করোনা ভাইরাস (কোভিট-১৯)-এর সংক্রমণের দ্বিতীয় পর্যায় চলেছে, তাই এই ভাইরাস সংক্রমণ রোধে জনসমাগম এড়াতে উপজেলার ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক ২ হাজার ৯২০ কৃষকের মাঝে পর্যায়ক্রমে প্রয়োজনে ইউনিয় ভিত্তিক সরিষা বীজ ও রাসায়নিক সার বিনামূল্যে বিতরণ করা হবে। এ হিসেবে মতে, চলতি রবি মৌসুমে প্রণোদনা ও পুনর্বাসন কর্মসূচির আওতায় উপজেলার ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক ২ হাজার ৯২০ কৃষকের মাঝে মোট ২৯ হাজার ২০০ কেজি ডাই-এ্যামোনিয়াম ফসফেট (ডিএপি), ২৯ হাজার ২০০ কেজি মিউরেট অব পটাশ (এমওপি) সার ও ২ হাজার ৯২০ কেজি সরিষা বীজ বিতরণ করা হবে।