বাউফলে মাদক সেবনে বাঁধা দেওয়ায় শিক্ষার্থীদের উপর হামলা, আহত-৭

প্রকাশিত: ৪:১৪ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২১
0Shares

পটুয়াখালী প্রতিনিধি :
পটুয়াখালীর বাউফলে মাদক সেবনে বাঁধা প্রদান করায় এক শিক্ষার্থীকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করা হয়েছে। ওই শিক্ষার্থীর নাম মো. সাকিব হোসেন (১৮)। সে নুরাইনপুর ফাজিল (ডিগ্রী) মাদ্রাসার আলিম ২য় বর্ষের ছাত্র। এছাড়াও এলোপাতাড়ি পিটিয়ে ৭ শিক্ষার্থীকে আহত করা হয়েছে। এদের মধ্যে গুরুতর আহত সাকিব ও মো. আইয়ব খাঁন বাউফল উপজেলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। বৃস্পতিবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে উপজেলার কেশবপুর ইউনিয়নের ভরিপাশা গ্রামের তালতলী বাজারে এ ঘটনাটি ঘটেছে। আহত শিক্ষার্থীরা ও স্থানীয় সূত্র জানায়, ঘটনার দিন ভরিপাশা গ্রামের চিহিৃত মাদক ব্যবসায়ী ও মাদকসেবী মো. শাহিন (২২),সৌরভ (২০), জুয়েল সরদার (২৮), তরিকুল (১৯), সিহাব (২০), শাওন (১৭) ও পারভেজ (২১) তালতলী বাজার সংলগ্ন নদীর পাড়ে বসে মাদকসেবন করলে আহত সাকিব ও আইয়ুবসহ ৫/৭জন শিক্ষার্থীরা বাঁধা প্রদান করে। পরে মাদকসেবীরা স্থান ত্যাগ করে চলে যায়। এর কিছুক্ষণ পরে ওই মাদকসেবীরা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে শিক্ষার্থীদের উপর হামলা চালায়। দাঁড়ালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে সাকিবের মাথায় গুরতর জখম করা হয়। বেধরক পিটিয়ে আহত করা হয় আইয়বসহ ৫/৭জন শিক্ষার্থীকে। ছোট ডালিমা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষক (গনিত) মো. মাইনুল ইসলাম বলেন, আহতরা আমার ছাত্র। তাঁরা অত্যন্ত মেধাবী। মাদকসেবনে বাঁধা দেওয়ায় তাদের উপর হামলা হয়েছে। আমি একজন সচেতন নাগরিক ও শিক্ষক হিসাবে হামলাকারীদের বিচার চাই। ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. আনিসুর রহমান বলেন, হামলাকারীরা এলকায় মাদক সেবনকারী হিসাবে পরিচিত।
এবিষয়ে বাউফল থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ হাসপাতালে গিয়েছে। অভিযোগের ভিত্তিতে আইনাণুগ ব্যবস্থা গ্রহণ নেওয়া হবে।