উল্লাপাড়ায় ভাবীর হাতে পুরুষাঙ্গ হারালেন দেবর!

প্রকাশিত: ৯:০৭ অপরাহ্ণ, জুন ২৮, ২০২১
0Shares

উল্লাপাড়ায় ভাবী কাটলো দেবরের পুরুষাঙ্গ

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলায় আকরাম হোসেন (২০) নামের এক যুবকের পুরুষাঙ্গ কর্তন করে দিয়েছে ভাবী মমতা খাতুন।

রোববার (২৭ জুন) রাতে উপজেলার কয়ড়ার রতনদিয়া দায়ারপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পরে গুরুতর আহত আকরাম হোসেন কে বগুড়া জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

অভিযুক্ত মমতা খাতুন ওই গ্রামের নবির হোসেনের স্ত্রী। জানা যায় যে, এঘটনার পূর্বেও এক যুবকের পুরুষাঙ্গ কেটে দিয়েছিলেন তিনি।

এবিষয়ে আহতের পিতা আব্দুল কাদের বলেন, রোববার (২৭ জুন) রাত সাড়ে ১০টার দিকে মোবাইলে সারানোর কথা বলে ছোট দেবর আকরাম হোসেনকে ঘরে ডেকে নিয়ে কাচি দিয়ে তার পুরুষাঙ্গ কেঁটে দেয়। এসময় আকরাম চিৎকার দিলে তাকে আহত অবস্থায় তাৎক্ষনিকভাবে উল্লাপাড়া ২০ শয্যা হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক অবস্থার বেগতিক দেখে তাকে বগুড়া জিয়া মেডিকেল হাসপাতালে স্থানান্তর করে। ওই রাতেই তাকে বগুড়া জিয়া মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে সে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তবে কি কারণে পুরুষাঙ্গ কর্তন করা হলে তার প্রকৃত কারণ এখনও জানা যায়নি, এ ঘটনায় উল্লাপাড়া মডেল থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

তিনি আরও বলেন, এর আগেও গত ২৭ মার্চ একই গ্রামের প্রতিবেশী হায়দার আলীর পুত্র নোমানের পুরুষাঙ্গ কর্তন করেছিল মমতা খাতুন। বিষয়টি স্থানীয়ভাবে মিমাংসরা করা হয়েছিল।

এবিষয়ে উল্লাপাড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দীপক কুমার দাস এতথ্য নিশ্চিত করে জানান, দেবরের পুরুষাঙ্গ কর্তনের কথা শুনে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়। ভিকটিম হাসপাতালে ভর্তি থাকায় কি কারণে এ ঘটনা ঘটেছে তা সুনির্দিষ্টভাবে বলা যাচ্ছে না। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে এ ঘটনা ঘটতে পারে। তবে এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত থানায় কেউ কোন অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ওসি আরও বলেন, এর আগেও ওই নারী আরও একজন যুবকের পুরুষ কর্তন করেছিল বলে শুনেছি, ওই সময়েও বিষয়টি পুলিশকে না জানিয়ে স্থানীয়ভাবে মিমাংসা করা হয়।