প্রখ্যাত পরমানু বিজ্ঞানী ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া ছিলেন আধুনিক বিজ্ঞানভিত্তিক বাংলাদেশ গড়ার সফল স্বপ্নদ্রষ্টা : যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত: ১০:৪৮ পূর্বাহ্ণ, মে ১০, ২০২০
0Shares

ডেস্ক নিউজ: যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জনাব মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল এম পি প্রখ্যাত এ পরমানু বিজ্ঞানীর প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করে বলেন, বিশিষ্ট পরমানু বিজ্ঞানী ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়া ছিলেন একজন সাচ্চা দেশপ্রেমিক।

তিনি বলেন, তাঁর মেধা, মনন ও সৃজনশীলতা দিয়ে জনগণের কল্যাণে আমৃত্যু কাজ করে গেছেন। ওয়াজেদ মিয়া তাঁর কর্মের জন্য ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কাছে অনুপ্রেরণার উৎস হিসেবে বেঁচে থাকবেন। অসাধারণ মেধার অধিকারী ওয়াজেদ মিয়া শৈশব থেকেই শিক্ষানুরাগী ছিলেন। তিনি ছিলেন দেশে আণবিক গবেষণার পথিকৃৎ। সজীব ওয়াজেদ জয়কে

ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়ার সুযোগ্য উত্তরসূরী উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মানে পিতার অসমাপ্ত কাজ শেষ করছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা ও তাদের যোগ্য উত্তরসূরী সজীব ওয়াজেদ জয়। তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত রুপকল্প ২০২১ এবং ২০৪১ বাস্তবায়নে অসামান্য অবদান রেখে চলেছেন।

শনিবার (৯ মে) বিশ্ববরেণ্য পরমানু বিজ্ঞানী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জামাতা এবং আওয়ামী লীগ সভাপতি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার স্বামী ড. এম এ ওয়াজেদ মিয়ার ১১তম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জনাব মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল এম পি এর উদ্যোগে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে ও যথাযথ স্বাস্থ্য বিধি মেনে গাজীপুরের বিভিন্ন মসজিদ মাদ্রাসায় পবিত্র কোরআন খতম ও দোয়া মাহফিল, রোজাদারদের মধ্যে ইফতার, করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত অসহায়দের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী বিতরন করা হয়। এসময়ে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ১১তম মৃত্যু বার্ষিকীতে উনার বিদেহি আত্মার মাগফেরাত কামনায় আমার নির্বাচনী এলাকার টংগী-গাজীপুর-২ এর বিভিন্ন মসজিদ, মাদ্রাসায় পবিত্র কোরআন খতম ও দোয়া মাহফিল, রোজাদারদের মধ্যে ইফতার, করেনায় ক্ষতিগ্রস্ত অসহায়দের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী এবং টংগী রেল স্টেশন এর প্লাটফরমে ছিন্নমুল, দিনমজুর ও বস্তিবাসীদের মধ্যে রাতের খাবার বিতরন করেছি।

উক্ত অনুষ্ঠানগুলোতে খাবার বিতরন, খাদ্য সামগ্রী বিতরন, পবিত্র কোরআন খতমসহ বিভিন্ন কাজে সহযোগিতা করেছেন মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মতিউর রহমানসহ অন্যান্য স্হানীয় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ।