আশুলিয়ায় প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ৪

প্রকাশিত: ৭:৪৩ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ১৯, ২০২২
134 Views

আশুলিয়া (ঢাকা) প্রতিনিধি :

ঢাকার উপকণ্ঠ সাভারের আশুলিয়ায় ঠিকাদারী ব্যাবসার দ্বন্দ নিয়ে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ৩টি ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানে প্রতিপক্ষের হামলা ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। এঘটনায় ৪জন আহত হয়।

পরে তাদেরকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে পাঠানো হয়।

আহতরা হলো আশুলিয়ার মধ্য গাজিরচট এলাকার স্থানীয় মোঃ হরমুজ আলী (৫৫), মোঃ হারুন মুন্সী (৪০), মোঃ মোফাজ্জল হোসেন (২৯) ও মোঃ রুবেল (৩০)।

সোমবার(১৯ ডিসেম্বর) দুপুরে এই বিষয়ে অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী। এর আগে রোববার রাত ৯.৩০ দিকে আশুলিয়ার মধ্য গাজিরচট চাড়ালপাড়া এলাকায় ৩টি ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানে এই হামলার ঘটনা ঘটে।

ক্ষতিগ্রস্ত সোহাগ ইলেকট্রনিক্স এর মালিক সোহাগ মুন্সি জানায়, কে বা কারা আলীর মোটরসাইকেলে দাগ অথবা সিট কেটে দিয়েছে। সেই সন্দেহে আমার নামে থানায় অভিযোগ করে। অভিযোগের ভিত্তিতে থানা থেকে সন্ধ্যায় পুলিশ তদন্ত করে চলে যায়। এরপর রাত ৯ টায় বিশ্বকাপ খেলা শুরু হলে সাড়ে নয়টার দিকে অতর্কিতভাবে আমাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে আলী ও কাজী হারুন ভান্ডারীর নেতৃত্বে ২০ থেকে ২৫ জন হামলা চালায়। এতে আমার বাবা সহ ৪জন গুরুতর আহত হয়েছে। আমার বাবাকে ঢাকা হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। তবে আলির সাথে আমার ঠিকাদারি ব্যবসা নিয়ে আগে থেকে একটু দ্বন্দ ছিল।

আহত রুবেল(৩০) জানায়, আমার ভাইকে মারছে একথা শুনতে পেয়ে আমি বাজারে দেখি আলী ও কাজী হারুন ভান্ডারী(৫০) এর সাথে আরিফুল(৩২), কাদের(৩০), পারভেজ(২৭), সেলিম(৩০), টিক্কা মনির(২৫), আমির(৩০), ফাহাদ(১৯), রাব্বি(২০), সহ ২০/২৫ জন মার্কেটে সোহাগ মুন্সির দোকান, নওগাঁ জেলার নাজমুলের সেলুন ও হারুন মুন্সির মুদির দোকান ভাঙচুর করতেছে। এ সময় হারুন ভাইকে মারতে আসলে আমি তাকে জড়িয়ে ধরি তখন আমার মাথায় আঘাত লাগে।

অভিযুক্ত আলী ও কাজী হারুন ভান্ডারীর নাম্বারে একাধিকবার যোগাযোগেট চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি।

এবিষয়ে আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এস আই) মোঃ মাসুদ বলেন, হামলার ঘটনার সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়েছি। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে দেখতে পাই কিছু দোকানে ভাঙচুর করা হয়েছে এবং কয়েক ব্যক্তি আহত হওয়ার কথাও শুনেছি। এ বিষয়ে এখনো লিখিত অভিযোগ করেনি কেউ। লিখিত অভিযোগ হলে অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।