ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড় ‘আম্পান’, সমুদ্রবন্দরে সংকেত বেড়ে ৪!

প্রকাশিত: ১২:৪৪ অপরাহ্ণ, মে ১৭, ২০২০
0Shares

নিউজ ডেস্ক: বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘আম্পান’ আরও উত্তর-পশ্চিমে এগিয়ে এসেছে। ফলে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ২ নম্বর সতর্কতার মাত্রা বাড়িয়ে ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।সমকাল

উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার সব নৌকা ও ট্রলারকে উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে এবং সেই সঙ্গে গভীর সাগরে বিচরণ না করতে বলা হয়েছে।

রোববার সকালে বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থানরত ঘূর্ণিঝড় ‘আম্পান’ সামান্য উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে একই এলাকায় অবস্থান করছে। এটি রোববার সকাল ৬টায় (১৭ মে) চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ৩৪৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ২৮০ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ২৭৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ২৫৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে অবস্থান করছিল। এটি আরও ঘণীভূত হয়ে উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হতে পারে।

দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট গভীর নিম্নচাপটি শনিবার মধ্যরাতে ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়। থাইল্যান্ড এর নাম দিয়েছে ‘আম্পান’। গত নভেম্বরে বাংলাদেশ ও ভারতের উপকূলে আঘাত হানা ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুলে’র গতি অনুসরণ করেই এগোচ্ছে ‘আম্পান’। আগামী মঙ্গল বা বুধবার এটি স্থলভাগে আঘাত হানতে পারে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, আজ এটি প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে। পরে তা আরও শক্তি বাড়িয়ে অতি প্রবল রূপ ধারণ করতে পারে। মঙ্গলবার নাগাদ ঘূর্ণিঝড়ের গতি ঘণ্টায় ১৭০ থেকে ২০০ কিলোমিটারে পৌঁছতে পারে বলে জানিয়েছে পশ্চিমবঙ্গের আবহাওয়া অফিস। তবে স্থলভাগের দিকে এগোনোর সঙ্গে সঙ্গে গতি কিছুটা কমে আসতে পারে।