পাবনার সুজানগরে সড়ক নির্মাণের কাজে অনিয়ম, ব্যবহার করা হচ্ছে বালির পরিবর্তে মাটি ও নাম্বার বিহীন ইট!

প্রকাশিত: ২:০০ অপরাহ্ণ, মে ২০, ২০২০
0Shares

নিজস্ব প্রতিবেদক:

পাবনার সুজানগরে সড়ক নির্মাণের কাজে অনিয়ম, ব্যবহার করা হচ্ছে বালির পরিবর্তে মাটি ও নাম্বার বিহীন ইট!

গত মঙ্গলবার(১৯ মে) পাবনার সুজানগর উপজেলার আহম্মদপুর ইউনিয়নের (৫ নং ওয়ার্ড) দাড়িয়াপুর একটি সড়ক নির্মাণের কাজে অনিয়ম হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

স্থানীয়সূত্রে জানা যায়, সুজানগর উপজেলার আহম্মদপুর ইউনিয়নের দাড়িয়াপুরে একটি কাঁচা সড়ক পাকা করনের কাজে ব্যাপক অনিয়ম হচ্ছে। বালির পরিবর্তে মাটি এবং অতি নিম্ন মানের ইট ব্যবহার করা হচ্চে।এতে এলাকার সচেতন স্থানীয় জনগণ বাঁধা প্রদান করলে তাদেরকে দেওয়া হয় নানা ধরনের হুমকি।

এবিষয়ে জানতে চাইলে, আহম্মদপুর ইউনিয়নের সাবেক ছাত্রলীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলম বলেন, দীর্ঘদিন পর আমার বাড়ির সাথে রাস্তা মেরামতের কাজ হচ্ছে।আমি ও ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের  নেতা আব্দুর রাজ্জাক ও রহমত আলীসহ উৎসাহ নিয়ে দেখতে বের হই। নির্মাণ কাজ দেখে হতবাক হয়ে যা্ই! কারন সেখানে বালির পরিবর্তে মাটি ও নাম্বার বিহীন অতি নিম্ন মানের ইট ব্যবহার করা হচ্ছে বলে। এটা আমরা সহ্য করতে না পেরে কাজে বাঁধা প্রদানের চেষ্টা করি এবং সিডিউল অনুযায়ী কাজ করার কথা বলায় ঠিকাদার মিঠুর লোকজন আমাদেরকে প্রাণহানি সহ চাঁদাবাজি মামলা প্রদানের হুমকি প্রদান করে। এলাকাবাসিসহ আমরা বিষয়টি আহম্মদপুর ইউনিয়ন যুবলীগ সেক্রেটারি মাজহারূল ইসলাম মিন্টু ভাইকে অবগত করেছি।

এব্যাপারে জানতে চাইলে, আহম্মদপুর ইউনিয়ন যুবলীগ সেত্রেটারি মাজহারুল ইসলাম মিন্টু জানান, ঘটনাটি সত্য, আমি চাইনা ক্ষুদ্র একটি কাজের কারনে আমার নেত্রী শেখ হাসিনা ও গণ-প্রজাতন্ত্রী সরকারের দূর্নাম হোক। তাই আমি বিষয়টি আমাদের পাবনা-২, আসনের সম্মানিত সাংসদ জনাব আহমেদ ফিরোজ কবির স্যারসহ উপজেলা চেয়াম্যান জনাব শাহিনুজ্জামান শাহিন’কে অবগত করেছি। এতে দু-জনই দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহনের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। আমি চাইনা একজন ঠিকাদার ও একজন ওয়ার্ক (ফখরুল আলম) এ্যাসিসন্টের কারনে আমার প্রাণ প্রিয় নেত্রী ও সরকারে দূর্নাম হোক। এটি সরকরী বরাদ্দ(১ কোটি ২৬ লাখ)এলজিইডি কর্তৃক ১৬শত মিটার রাস্তা নির্মাণকল্পে।

এব্যাপারে, জাহিদুর এন্টারপ্রাইজের প্রো-প্রাইটর(কনস্ট্রাকশন) এর ঠিকাদার জাহিদুর রহমান মিঠু জানান, আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অপবাদ দেওয়ার চেষ্টা চলছে । তবে আমি শুনেছি কাজটা রনি এন্টারপ্রাইজ(কনস্ট্রাকশন) নামের একটি প্রতিষ্ঠান করছে।আর বিশেষ করে আমি এতো ছোট কাজ করিনা।

এব্যাপারে জানতে, উপজেলা প্রকৌশলীর দপ্তর সুজানগর(পাবনা)বরাবর সরকারী টেলিফোন(০৭৩২৯৫৬১০৮) নাম্বারে একাধিক বার কল করেও যোগাযোগ সম্ভব হয়নি।

অপরদিকে সুজানগর উপজেলা চেয়াম্যান শাহিনুজ্জামান শাহিনের মোবাইল(০১৭১০-৫২৬০২৩) নাম্বারে কল দিলে তিনি রিসিভ করেননি।

এব্যাপারে জানতে, পাবনা-২,আসনের সাংসদ আহমেদ ফিরোজ কবিরের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।