বাগেরহাটে আ.লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, নিহত ১

প্রকাশিত: ২:৪৩ অপরাহ্ণ, মে ২৮, ২০২০
0Shares

 শরিফুল ইসলাম, বাগেরহাট প্রতিনিধি: বাগেরহাটের মোল্লাহাটে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন উভয় পক্ষের ২০ জন।

বুধবার (২৭ মে) সন্ধ্যায় গুরুতর আহত অবস্থায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর তিনি মারা যান। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মোল্লাহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী গোলাম কবির।

নিহত বাদশা সরদার গাংনি রহমত পাড়া এলাকার সালেক সরদারের ছেলে। আহতরা হলেন— ইসমাইল খান(১৮), হাবিব মল্লিক (২০), আলমগীর সরদার (৫০), বাচ্চু মল্লিক (৩৫), আলমগীর শেখ (৪০), ওয়াহিদ সরদার (৫৫), সাইফুল ইসলাম (১৫), আব্দুল্লাহ শিকদার (২৬), রমজান (২৫), রিয়াজ মোল্লা (২০), সবেদ আলী (৩৫), আবেদ আলী (৩৮), রনি হাসান (৩৯), মিঠু শেখ (৪০) ও তার স্ত্রী, ছেলেও আহত হয়েছেন। আহতদের মোল্লাহাট ও খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এলাকাবাসীদের বরাত দিয়ে ওসি কাজী গোলাম কবির জানান, বুধবার (২৭ মে) বিকেলে মোল্লাহাটে উপজেলার গাংনি রহমত পাড়া এলাকায় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান জাকির গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে বাদশা সরদার আহত হন। তাকে উদ্ধার করে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে আনা হলে চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

নিহত বাদশা সরদারের বড়ভাই ফিরাঙ্গী সরদার জানান, বাদশা সরদার বাজার করে বাড়ি ফেরার পথে স্থানীয় ১০-১২ জনের একটি অস্ত্রধারী দল তার ওপর হামলা চালায়। এতে তিনি গুরুতর আহন হন। তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

ওসি আরও জানান, স্থানীয় প্রভাব বিস্তারকে কেন্দ্র করে ওই দুই পক্ষের সংঘর্ষে বাদশা সরদার নিহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরর প্রস্তুতি চলছে। ফের সংঘর্ষের আশঙ্কায় সেখানে অতিরিক্ত