লাশ পুড়িয়ে শেষ করতে পারছে না ভারত!

প্রকাশিত: ৪:৫১ অপরাহ্ণ, জুন ৭, ২০২০
0Shares

অনলাইন ডেক্স :করোনাভাইরাস বা কোভিড-১৯ সংক্রমণে মৃত্যুপুরী ইতালিকে ছাড়িয়ে যাচ্ছে ভারত। দেশটিতে মৃত্যুর সংখ্যা আশঙ্কাজনকভাবে বাড়ছে। ওয়ার্ল্ডোমিটারের হিসাবে সংক্রমণে ভারত এখন বিশ্বে ষষ্ঠ হলেও জনস হপকিন্স ইউনিভার্সিটির তালিকায় ভারতের স্থান পঞ্চম।

ভারতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৪৬ হাজার ৬২২ জন। প্রাণহানীর সংখ্যা বেড়েছে বহুগুণে। মারা গেছে ৬ হাজার ৪৬ জন।

মৃত্যুর সংখ্যা ঘণ্টায় ঘণ্টায় বাড়ছে। অবস্থা এতই খারাপ যে, ২৪ ঘণ্টা জ্বলছে চিতা-চুল্লি। কিন্তু শেষ হচ্ছে না লাশের স্তূপ। দিল্লির শ্মশানে লাশের সারি বাড়ছেই।

করোনা সংক্রমিত হয়ে মৃতুদের দেহ কাঠের চিতায় তুলতে গিয়ে ভাইরাসটির সংক্রমণ ছড়াতে পারে। এমন আশঙ্কায় এতদিন শুধু বৈদ্যুতিক চুল্লিতে দেহ সৎকার করা হচ্ছিল।

কিন্তু এখন তাতে কুলিয়ে উঠতে পারছেন না সংশ্লিষ্ঠরা। ফলে দেহ চিতায় সৎকারের অনুমতি দিয়েছে প্রশাসন। তাতেও হিমশিম খেতে হচ্ছে দিল্লির নিগম বোধ শ্মশান কর্তৃপক্ষকে। চিতার আগুন আর ধোঁয়ায় শ্মশানকর্মীরা নাকাল হয়ে পড়ছেন।

ভারতের গত জানুয়ারির শেষ থেকে এখন পর্যন্ত নভেল করোনার প্রকোপে ভারতে ৬ হাজার ৯৪৬ জন প্রাণ হারিয়েছেন। এর মধ্যে শুধু দিল্লিতেই প্রাণ হারিয়েছেন ৭০৮ জন। তবে মৃত্যুসংখ্যা বেড়ে চললেও, কভিড-১৯ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে যাদের মৃত্যু হয়েছে, সব শ্মশানে তাদের দাহ্য করা যাচ্ছে না। নিগম বোধ ছাড়া অন্য তিনটি শ্মশান এবং দু’টি কবরস্থানেই তাদের সৎকার করতে হচ্ছে।

সূত্র: somoynews