কালীগঞ্জে দুধ দিচ্ছে ৬ মাসের বাচ্চা গরু নিজেও খাচ্ছে তার মায়ের দুধ

প্রকাশিত: ৫:৪৫ অপরাহ্ণ, জুন ৯, ২০২০
0Shares

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি :
৬ মাসের এক বাচ্চা বাছুর গরু থেকে দুধ পাওয়া যাচ্ছে। প্রতিদিন ওই বাছুর প্রায় ৪/৫ ’শ গ্রাম দুধ দিচ্ছে। বাছুরটি আবার তার মায়েরও দুধ খাচ্ছে। এমন আলোচিত ঘটনাটি ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার মহাদেবপুর গ্রামের কনজ বিশ্বাসের বাড়িতে। গরুর মালিক বাচ্চাটির নাম দিয়েছে স্মরস্বতী। গত একমাস ধরে প্রতিদিন মা গরুটি থেকে ৩ কেজি আর বাচ্চাটি থেকে ৪/৫ শত গ্রাম করে দুধ পাচ্ছেন।

গরুটির মালিক কনজ বিশ্বাস জানান, নিজ পরিবারের সদস্যদের দুধ খাওয়ার জন্য একটি গাভী লালন-পালন করতেন। ৩ বছর আগে গাভীটির একটি বাচ্চা হলে নাম রাখেন গঙ্গা। এরপর গত বছরের ৯ ডিসেম্বর গাভীটি আরেকটি বাচ্চা হলে নাম রাখেন স্মরস্বতী। তিনি জানান, গত এক মাস হলো হঠাৎ করে ওই বাচ্চাটির শরীর থেকে দুধ বের হতে দেখা যায়। এই অবস্থায় একদিন বাচ্চার শরীর থেকে দুধ বের করার চেষ্টা করে দেখা যায় প্রায় ৩/৪’ শ গ্রাম দুধ বের হয়েছে। এমন বিষয়টি প্রতিবেশিদের জানালে তারা চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে বলেন।

এরপর তিনি একজন পশু চিকিৎসকের স্বরনাপন্ন হলে ডাক্তাররা এটাকে ঔষধের মাধ্যমে শুকিয়ে ফেলার পরামর্শ দেন। কিন্তু গ্রামের লোকজন সেটার বিপক্ষে গিয়ে বাচ্চার শরীর থেকে বের হওয়া দুধ মন্দিরে দেওয়ার পরামর্শ দেন। প্রথম কয়েকদিন বাচ্চার দুধও তারা খেয়েছেন, এখন মন্দিরে দিচ্ছেন।
তিনি আরো জানান, বাচ্চ গরুটি থেকে ঠিকমতো দুধ বের করলে আরো বেশি দুধ পাওয়া যেতো। কিন্তু বাচ্চার শরীরের কথা চিন্তা করে কম করে বের করে থাকেন। এইটুকু না বের করলে মাটিতে ফোটা ফোটা ঝরে পড়ে।

সরেজমিনে কনজ বিশ্বাসের বাড়ীতে গেলে দেখা গেছে, তার স্ত্রী মৈত্রী বিশ্বাস বাচ্চা গরুটির শরীর থেকে দুধ বের করছে। এ সময় বাচ্চাটি (স্মরস্বতী) তার মায়ের দুধ পান করছে। ৩শ গ্রাম মতো দুধ বের হওয়ার পর দুধ বের করা বন্ধ করে দেন মৈত্রী বিশ্বাস। তিনি জানান, এখনও বাচ্চাটির শরীরে দুধ রয়েছে। কিন্তু তার শরীরের কথা চিন্তা করে আর দুধ নিচ্ছেন না।

এ বিষয়ে কালীগঞ্জ উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাক্তার এ.এস.এম আতিকুজ্জামান জানান, এ জাতীয় ঘটনা খুবই কম শোনা যায়। তবে হরমন জনিত সমস্যায় অনেক সময় এটা হতে পারে। এ নিয়ে ভয় পাওয়ার কোনো কারন নেই, অল্পদিনেই এটা বন্ধ হয়ে যাবে বলে জানান।