সেই ধর্ষিতা শিশু মেয়েটির চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন – মেয়র আশরাফ

প্রকাশিত: ৭:৩৪ অপরাহ্ণ, জুন ১৯, ২০২০
0Shares

কালীগঞ্জ(ঝিনাইদহ)প্রতিনিধি: 

কালীগঞ্জে সৎ বাবা কর্তৃক ধর্ষিতা সেই শিশু মেয়েটির চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন পৌর মেয়র আশরাফুল আলম আশরাফ। এমপির নির্দ্দেশে শুক্রবার সকালে তিনি ধর্ষিতার মায়ের হাতে ঔষধ ক্রয়ের জন্য নগদ সহায়তা তুলে দেন। উল্লেখ্য, গত ১২ জুন পঞ্চম শ্রেণী পড়–য়া ১১ বছরের ওই মেয়েটি ধর্ষনের শিকার হয়। এর ৩ দিন পর তার মায়ের অভিযোগে কালীগঞ্জ পৌর মেয়রের সহযোগিতায় ধর্ষক সৎ বাবা রেজাউল মন্ডল আটক হয়।

ধর্ষিতার মা জানায়, ধর্ষনের শিকার হয়ে তার শিশু মেয়েটি ক্রমেই অসুস্থ হয়ে পড়ছিল। গত ১৭ জুন ধর্ষক সৎ বাবা আটকের পর পুলিশ ধর্ষিতা মেয়েটির ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে পাঠায়। চিকিৎসকরা জানিয়েছে, তার শারিরীক অবস্থা বেশ দূর্বল। ভাল চিকিৎসা করতে হবে, এজন্য ব্যাবস্থাপত্র লিখে দিয়েছেন। কিন্তু হতদরিদ্র মাতার পক্ষে তার চিকিৎসার ওই অর্থ জোগাড় করা একেবারেই অসম্ভব ছিল। সর্বশেষ কোন উপায় না পেয়েই অসহায় মা বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কালীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের দ্বারস্থ হন।

এ সময় সাংবাদিকরা তাৎক্ষনিক বিষয়টি পৌর মেয়রেকে অবহিত করেন। এরপর পৌর মেয়র বিষয়টি স্থানীয় এমপি আনোয়ারুল আজিম আনারকে জানালে তারই নির্দ্দেশে চিকিৎসার দ্বায়িত্ব নেন মেয়র।

মেয়র আশরাফ জানান, ধর্ষিতার মা একজন হতদরিদ্র মহিলা। শহরের হোটেল রেষ্টুরেন্টে পানি টানার কাজ করে। তার দুরঅবস্থায় চিকিৎসার অভাবে মেয়েটির জীবন বিপন্ন হতে পারে ভেবেই তিনি স্থানীয় এমপির পরামর্শে আর্থিক সহায়তা দিয়েছেন। এছড়াও মেয়েটি সুস্থ না হওয়া পর্ষন্ত সার্বিক দ্বায়িত্ব নিবেন বলেও আশ্বাস দেন তিনি।