করোনা লগ্নেও থেমে নেই অবৈধ ফুট ব্যবসা

প্রকাশিত: ৩:২৯ অপরাহ্ণ, জুন ২০, ২০২০
0Shares
নিজস্ব প্রতিবেদক: মহামারী করোনা লগ্নেও থেমে নেই অবৈধ ফুট ব্যবসা, জীবিকা নির্বাহের জন্য দোকানদারদের জিম্মি হতে হয় ফুট দালাল ন্যাংরা রতনের কাছে।
ঢাকার অদূরে সাভারের নবীরগর জাতীয় স্মৃতিসৌধের পাচীর ঘেঁসে গড়ে উঠেছে প্রায় ৫শতাধিক অবৈধ দোকানপাট।এই দোকানপাট পরিচালনা করেন ফুট দালাল ন্যাংরা রতন ভূইয়া।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন ফুট দোকানদার বলেন, ফুটের দোকানপাট পরিচালনা করে রতন ভাই, পুলিশ-প্রশাসন বা যে কোন ধরনের কোন সমস্যা সৃষ্টি হলে সেগুলো তিনিই সমাধান করেদেন।
প্রতিদিন কত টাকা দিতে হয় এ ব্যাপারে জানতে চাইলে, তিনি বলেন দোকান ভেদে টাকার পরিমান ভিন্ন-ভিন্ন। যেমন, কাপরের দোকান বাবদ ৫০, কাপড়ের ভ্যান ১৫০, ফলের দোকান ২০০ টাকা করে নেয়।
তিনি আরো বলেন, এই টাকা স্মৃতিসৌধের পুলিশ-আনসার ও স্থানীয় নেতাদের কথা বলে উঠায় আর যদি কেউ টাকা না দেয় তাহলে তার দোকান বসাতে দেওয়া হয়না।
পরিচয় গোপন রেখে কৌশল অবলম্বন করে দোকান বসানোর ব্যাপারে মুঠোফোনে ফুটের দালাল রতনের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, ফুট গতকাল বন্ধ করেছি আবার ২দিন পর চালু করবো, আপনি বিকালে আসেন সামনা-সামনি কথা বলি।
এব্যাপারে মুঠোফোনে সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধের পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ এসআই মহিরের কাছে জানতে চাইলে, তিনি বিষয়টি স্বীকার করে বলেন আমাদের পোস্টিংটা অস্থায়ী, মাত্র ১ মাসের জন্য পাঠানো হয়। ক্যাম্পটা আশুলিয়া থানার অধীনে হওয়ায় মাস অন্তর একজন অফিসার এইখানে ডিউটি করতে আসে।
তিনি আরো বলেন, যদি কেউ আমাদের নাম ভাঙ্গিয়ে টাকা উত্তোলন করে থাকে বা করে তাহলে তার বিরুদ্ধে অবশ্যই ব্যবস্থা গ্রহন করবো।
অপরদিকে সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধের আনসার ক্যাম্প ইনচার্জ(পিসি) মো. জয়নালকে একাধিকবার ফোন কররেও তিনি কল রিসিভ করেননি।