তাড়াশে ১০ বছর শিকলে বাঁধা সাজেদুল

প্রকাশিত: ২:৩২ অপরাহ্ণ, জুন ২৯, ২০২০
0Shares

মহসীন আলী,তাড়াশ.

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে সাজেদুলের জীবন চলে শিকল বাঁধায়। তাড়াশ পৌর সভার সোলাপাড়া মহল্লার আব্দুস সামাদের ছেলে সাজেদুল (২০) দীর্ঘদিন যাবত বহুরুপি প্রতিবন্ধিতা নিয়ে জীবন যাপন করছে। বাবা মা ২জনই দিন মুজুর হলেও প্রতিবন্ধী সাজেদুল এক মাত্র সম্বল এই পরিবারের বলে তারা ছোট বেলা থেকেই ছেলের সুস্থ্যতার জন্য ডাক্তার কবিরাজ সহ বিভিন্ন ধরনের চিকিৎসা করছেন। তাতেও কোন কাজ না হলে ১০ বছরেরও বেশী সময় ধরে ছিকলে বন্দী জীবন পার করছে এই প্রতিবন্ধী সাজেদুল। বাবা মা ছেলে হারিয়ে যাওয়ার ভয়ে,পানিতে পরে ডুবে যাওয়ার ভয়ে অথবা মানুষের অন্যায় করবে এই ভয়ে বাধ্য হয়ে পায়ে শিকল দিয়ে গাছের সাথে বেঁধে মানুষের দুয়ারে কাজ করতে যায়। রোদ,বৃষ্টিই সঙ্গি হয়ে থাকে সাজেদুলের সাথে। এদিকে কিছুদিন আগে তার ছোট বোন সালমা (১০) অসুস্থ্য থাকায় মারা গেছে। পরিবারে চলছে শোকের ছায়া।

প্রতিবন্ধী সাজেদুলের বাবা আব্দুস সামাদ বলেন, সংসারে অভাবের কারনে ছেলেকে উন্নত চিকিৎসা করতে পারিনি বলে আজকে শিকলে বেধে রাখতে হয়েছে। আল্লাহ কপালে যা রাখছে তাই হবে। কিছুদিন আগে আমার মেয়েটাকেও আল্লাহ ওপারে নিয়ে গেলেন। একমাত্র ছেলে আমার থাকলো তাও ছিকলে বাঁধা। উচ্চ মহলের কাছে ছেলের উন্নত চিকিৎসার জন্য আমি সহযোগীতা প্রত্যাশা করছি।

এ ব্যাপারে উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা আলা উদ্দিন বলেন, আমরা সমাজসেবা অফিস থেকে অ¯^চ্ছ প্রতিবন্ধীর ভাতার ব্যবস্থা করেছি। পাবনা মানসিক হাসপাতালে সমাজসেবার কার্যক্রম আছে সেখানে তার উন্নত চিকি’সার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এছাড়াও বিভিন্ন সরকারী অনুদানে তাকে সহযোগীতা করতে পারবো।