সুন্দরবনে থাকা দস্যুদের বিরুদ্ধে মোংলা থানা পুলিশের অভিযান শুরু

প্রকাশিত: ১০:৫৭ অপরাহ্ণ, জুলাই ৩, ২০২০
0Shares
মোঃসোলায়মান শেখ(বিশেষ প্রতিবেদক)মোংলা বাগেরহাট:
সুন্দরবনের থাকা দস্যুদের বিরুদ্ধে  বিশেষ অভিযান শুরু করেছে মোংলা থানা পুলিশ।
বনের অভ্যন্তরে সব ধরনের অপরাধ কর্মকান্ড নিয়ন্ত্রণে পুলিশের পক্ষ থেকে কঠোর নজরদারি বাড়ানোর লক্ষ্য নিয়ে এ অভিযান শুরু হয়। গতকাল শুক্রবার  মোংলা বন্দরের পিকনিক স্পট সংলগ্ন বনবিভাগের অফিস থেকে এ অভিযান কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এসময় উপস্থিত ছিলেন মোংলা রামপাল সার্কেলের সহকারি পুলিশ সুপার আসিফ ইকবাল, মোংলা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ইকবাল বাহার চৌধুরী, ওসি (তদন্ত) তুহিন মন্ডলসহ পুলিশের অন্যান্য সদস্যবৃন্দ।
বাগেরহাট পুলিশ সুপার পংকজ চন্দ্র রায় বলেন, সুন্দরবনকে আমরা সেই রকম একটি সুন্দরবন রুপান্তরিত করবো, যেটি অর্থনৈতিক কর্মকান্ড থেকে শুরু করে সমস্ত কর্মকান্ডের কেন্দ্র বিন্দু হবে। সেটি করতে গেলে শুধু সুন্দরবনে বিষ প্রয়োগকারীদের বিরুদ্ধে নয়, যারা বনদস্যুতা করে, বাঘ-হরিণ শিকার করে তাদের প্রতি আমাদের কঠিন নিষ্ঠুরতা থাকবে। তাদের সবার প্রতি আমাদের একটাই কথা থাকবে তোমরা ভালোর পথে ফিরে আসো, নয়তো তোমাদের কষ্ট ভোগ করতে হবে। তিনি আরো বলেন, স্থানীয় সাংসদ ও পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার নিজেই সুন্দরবনকে টেককেয়ার করেন। এছাড়া আইজিপি ও ডিআইজি মহোদয়ও চাইছেন সুন্দরবনকে আমরা বসবাস উপযোগী ও ট্যুরিস্ট উপযোগী করে তুলি। এছাড়া সিডর, আইলা, ফনি ও আম্পানসহ সকল দুযোর্গ থেকেই সুন্দরবন আমাদেরকে মায়ের মত আগলে রাখে, তাই এ বনটাকে সুরক্ষা দেয়াই আমাদের প্রধান উদ্দেশ্য।  সুন্দরবনে দস্যুতা দমনে পুলিশের সক্ষমতা বিষয়ে জানতে চাইলে পুলিশ সুপার পংকজ চন্দ্র রায় বলেন, আমাদের যথেষ্ঠ সক্ষমতা আছে। প্রয়োজনে আমরা দ্রুতগামী নৌযান ভাড়া করে সুন্দরবনে দস্যুতাদমন কার্যক্রম পরিচালনা করবো।
পুলিশ বাহিনীর অপারেশনাল কার্যক্রম বৃদ্ধি ও অবকাঠামো উন্নয়নে সরকারের পক্ষ থেকে যেসব পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছিল তার বেশিরভাগই বাস্তবায়ন করা হয়েছে। এবং সমনে বাকি গুলা বাস্তবায়ন করা হবে।