অনলাইনে ঢাবি ও জাবিতে ক্লাস শুরু

প্রকাশিত: ৫:০২ অপরাহ্ণ, জুলাই ৯, ২০২০
0Shares

মহামারি করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে দীর্ঘ সাড়ে তিন মাসের বেশি সময় ধরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। সামনে আর কত দিন এভাবে থাকতে হবে তার কোনও নিশ্চয়তা নেই। তাই শিক্ষার্থীদের পাঠক্রম চালিয়ে নেবার সিদ্ধান্ত নিয়েছে দেশের বৃহৎ দুটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।
৭ জুলাই থেকে অনলাইনে কার্যক্রম শুরু করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়। অন্যদিকে ১২ জুলাই থেকে শুরু করতে যাচ্ছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়।

জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সামর্থ্য অনুযায়ী চলবে এ কার্যক্রম। তবে এই অনলাইন কার্যক্রমের বিষয়াদি প্রাতিষ্ঠানিকভাবে গণ্য করা হবে না। এমন কি এই কার্যক্রমে থাকবে না কোনো নম্বর কিংবা ফলাফল। শুধু শিক্ষার্থীদের মানসিকভাবে চাঙ্গা রাখতে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রশাসন। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, মহামারির কারণে কিছু সময় হারালেও দীর্ঘ বন্ধের কারণে শিক্ষার্থীরা যেন একাডেমিক এবং বুদ্ধিবৃত্তিকভাবে পিছিয়ে না পড়ে। বিষয়টি নিশ্চিত করতে এমন উদ্যোগ নিয়েছে প্রশাসন।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সিদ্ধান্ত বাধ্যতামূলকভাবে কাউকে মানতে হবে এমনও নয়। গত মাসের শেষ সপ্তাহে বিভাগ ও ইনস্টিটিউট-প্রধানদের ‘সীমিত সামর্থ্য’ দিয়েই অনলাইনে শিক্ষা কার্যক্রম চালু করতে অনুরোধ জানান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য। তাঁর অনুরোধের পরপরই শিক্ষকবৃন্দ শিক্ষার্থীদের সঙ্গে যোগাযোগ করে তাদের কাছ থেকে ই-মেইল ঠিকানা ও ফোন নম্বরসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় তথ্য নেন। একই সঙ্গে অনলাইন ক্লাসবিষয়ক প্রয়োজনীয় পরামর্শ-নির্দেশনাও দিচ্ছেন তারা।

ইতিমধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিকাংশ বিভাগে ক্লাস শুরুও হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, অনলাইন ক্লাসগুলোতে লাইভ ক্লাসের পাশাপাশি থাকবে শিক্ষকদের রেকর্ড করা অডিও লেকচার, রিডিং মেটেরিয়ালস, ইন্টারনেট লিংক, ভিডিও ইত্যাদি। ক্লাস টেস্ট বা অ্যাসাইনমেন্টও অনলাইনে প্রদান করা হবে। তবে এসব কার্যক্রমের জন্য প্রাতিষ্ঠানিক কোনো সম্পৃক্ততা থাকবে না। এসব নম্বরও মূল পরীক্ষার সঙ্গে যোগ হবে না। অন্যদিকে, দেশের আরেকটি বৃহৎ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় আগামী ১২ জুলাই থেকে অনলাইন ক্লাস শুরু করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন থেকে বলা হয়েছে, আপাতত অনলাইন ক্লাসে উপস্থিতির ওপর কোনো নম্বর না রাখতে ও কোনো ধরনের পরীক্ষা না নিতে। কিন্তু কোনো বিভাগের সভাপতি চাইলে উপস্থিতির ওপর নম্বর রাখতে পারবেন। মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের সভাপতিত্বে বিভিন্ন বিভাগের সভাপতি, অনুষদসমূহের ডিন ও ইনস্টিটিউটসমূহের পরিচালকবৃন্দের উপস্থিতিতে এক ভার্চুয়াল বৈঠকে এসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে, প্রাথমিকভাবে শুধু অনলাইনে ক্লাস নেওয়া হবে। তবে শিক্ষকরা অ্যাসাইনমেন্ট দিতে ও নিতে পারবেন। পরে করোনা ভাইরাসের পরিস্থিতি বিবেচনায় একাডেমিক কাউন্সিলে সিদ্ধান্ত হলে পরীক্ষা বা টিউটোরিয়ালের কথা ভাবা হবে।

আরিফুল ইসলাম (বার্তা সম্পাদক)
“দ্যা নিউ স্টার”