সুনামগঞ্জ শহরের নিচু এলাকা আবারও প্লাবিত, সুরমার পানি বিপদসীমার উপরে

প্রকাশিত: ১:৩২ অপরাহ্ণ, জুলাই ১০, ২০২০
0Shares
আল হাবিব সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি :  
সুনামগঞ্জের সুরমা নদীর পানি অবারও বিপদসীমার উপর  দিয়ে বইছে।শুক্রবার (১০ জুলাই) সকালে সুরমা নদীর ষোলঘর পয়েন্ট দিয়ে বিপদসীমার ১৭সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এক সপ্তাহের ব্যবধানে আরও সুনামগঞ্জ শহরের নিচ এলাকা গুলোতে বন্যা দেখা
দিয়েছে। বিশেষ করে সুনামগঞ্জ শহরের নবীনগর এলাকায় সড়ক উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে।
এ ছাড়া শহরের উত্তর আরপিন নগর, বড়পাড়া, মল্লিকপুর সহ আরও কয়েকটি এলাকায় সুরমা নদীর পানি উপচে ঢুকে পড়েছে। এ দিকে জেলার দোয়ারাবাজার উপজেলার সাথে বিভিন্ন ইউনিয়নের যোগাযোগ প্রায় বিচ্ছিন্ন অবস্থায় রয়েছে।
দোয়ারাবাজার সদর ইউনিয়ন থেকে নরসিংহ পুর ইউনিয়নে যাওয়ার রাস্তা ডুবে গেছে।
বিশ্বম্ভপুর, তাহিপুর ও জামালগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন নি অঞ্চল পানিতে তলিয়ে গেছে। গতকাল (০৯ জুলাই) আবহাওয়ার পূর্বাবাস দেখে বন্যা হতে পারে এ জন্য সবাইকে সতর্ক করে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে জেলা প্রশাসন। পানি উন্নয়ন বোর্ড জানিয়েছে, ভারতের আসাম ও মেঘালয় রাজ্যে বৃষ্টিপাত
বাড়লে আমাদের সুরমা নদীতে পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকবে। গত ২৪ঘন্টায় সুনামগঞ্জে ১৮৩মিলিমটিার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। আগামী ৩ থেকে ৪দিন টানা বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকবে। তাই বন্যা পরিস্তিতির আরো অবনতি হবে বলে জানানো হয়েছে পানি উন্নয়ন বোর্ডের পক্ষ থেকে। তাহিপুর
উপজেলার যাদুকাটা নদীতেও অনেক পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। দ্বিতীয়  দফার বন্যার কবলে পড়ে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। পানি
বৃদ্ধি পেয়ে বন্যা দেখা দিলে ত্রাণ সংকট দেখা দিতে পারে বলে অনেক আশংকা করছেন।

সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী সহিবুর রহমান বাংলানিউজকে জানান, আগামী ৩ থেকে ৪ দিন টানা ভারী বর্ষণ অব্যাহত থাকবে,
তাই বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি হবে। সুরমা নদীর পানি বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। বন্যা মোকাবেলার জন্য প্রয়োজনী প্রস্তুতি রাখার জন্য প্রশাসনকে জানিয়েছি।