নকলায় আনন্দ মোহন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ছাত্রলীগের উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি

প্রকাশিত: ৩:৫৬ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৪, ২০২০
0Shares

মো. মোশারফ হোসাইন, শেরপুর প্রতিনিধি:

মুজিব জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের ঘোষিত কর্মসূচি বাস্তবায়নের লক্ষে নকলায় আনন্দ মোহন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ছাত্রলীগের উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি উদ্বোধন করা হয়েছে।

‘মুজিব বর্ষের আহবান, তিনটি করে গাছ লাগান’ গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রধান মন্ত্রী জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার এই স্লোগানকে সামনে রেখে সোমবার (১৩ জুলাই) বিকেলের দিকে এ বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি উদ্বোধন করা হয়। এ সময় আনন্দ মোহন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক মো. শেখ সজল, এ.এস.এম সিফাত, রাকিবুর রহমান রাকিব, মিনহাজুল আবেদীন মিনহাজ, রায়হান ও অনিকসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী-২০২০ উপলক্ষে প্রধান মন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার আহবানে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ সারাদেশ ব্যাপী বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি ঘোষণা করেন। এর ধারাবাহিকতায় ময়মনসিংহ মহানগর ছাত্রলীগের উদ্যোগে নগর জুড়ে বৃক্ষরোপনের লক্ষে সোমবার ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশন (মসিক) এর মেয়র মো. ইকরামুল হক টিটু ময়মনসিংহ সার্কিট হাউজ মাঠে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি উদ্বোধন করেন। ঠিক একই সময় ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশন (মসিক) এর মাননীয় মেয়র মো. ইকরামুল হক টিটু’র অনুপ্রেরণায় আনন্দ মোহন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক মো. শেখ সজলের সার্বিক দিক নির্দেশনায় ও সহযোগিতায় কলেজ ছাত্রলীগ কর্মী এ.এস.এম সিফাতের নেতৃত্বে শেরপুরের নকলা উপজেলা পরিষদ কমপ্লেক্স চত্বরে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি উদ্বোধন করা হয়। করোনা ভাইরাসের কারনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় নিজ নিজ এলাকায় এ বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে বলে কলেজ ছাত্রলীগ কর্মীরা জানান।

ছাত্রলীগ কর্মী এ.এস.এম সিফাত বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে পরিবেশের ওপর বিরূপ প্রতিক্রিয়া মোকাবেলা ও পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় বৃক্ষের বিকল্প নেই। এ কারনেই হয়তো জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী-২০২০ উপলক্ষে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতি গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রধান মন্ত্রী জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা দেশ ব্যাপী বৃক্ষরোপনের নির্দেশনা দিয়েছেন। আর এ নির্দেশনা বাস্তবায়নে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ সারাদেশ ব্যাপী বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির ঘোষণা দেন। তারা কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের কর্মসূচির বাস্তবায়নে বৃক্ষরোপণ শুরু করেছে। বছরব্যাপী বিভিন্ন জায়গায় ফলদ, বনজ ও ঔষুধী জাতের চারা রোপণ করা হবে বলে তারা জানান।