শেরপুরে পৃথক ঘটনায় হতাহত ৫

প্রকাশিত: ৪:০১ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৪, ২০২০
0Shares

মো. মোশারফ হোসাইন, শেরপুর প্রতিনিধি:

শেরপুর সদর উপজেলায় পৃথক বজ্রপাতের ঘটনায় কলেজ শিক্ষার্থীসহ ২ জন ও জেলার শ্রীবরদী উপজেলায় পুকুরের পানিতে ডুবে এক শিশু নিহত হয়েছে। তাছাড়া বজ্রপাতের ঘটনায় আরও ২ নারী আহত হয়েছেন।

১৩ জুলাই সোমবার বিকেলে সদর উপজেলার পাকুড়িয়া ইউনিয়নের তারাগড় গ্রামে ও ভাতশালা ইউনিয়নের ছনকান্দা গ্রামে বজ্রপাতে নিহতের ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- তারাগড় গ্রামের আতশ আলীর স্ত্রী রহিমা বেগম (৪৫) ও ছনকান্দা গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে শেরপুর বিজ্ঞান কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী নাজিউর রহমান নবীন (১৭)। আর আহত নারীরা হলেন- পাকুড়িয়া ইউনিয়নের তারাগড় গ্রামের সাফায়েত উল্লাহর স্ত্রী আকলিমা (৬৫) ও একই গ্রামের আব্দুল আজিজের স্ত্রী মোছা. বেগম (৪৬)।

জানা গেছে, নিহত ও আহত নারীরা ঘরের বাহিরে গৃহস্থালির কাজ করতেছিলেন এবং নিহত নাজিউর রহমান নবীন বাড়ির নিকটে এক মাঠে খেলতেছিলো। বজ্রপাতে তারা গুরুতর আহত হলে তাদেরকে উদ্ধার করে শেরপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন। কর্তব্যরত চিকিৎসকরা জানান, তাদেরকে হাসপাতালে আনার আগেই মারা গেছেন। সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) মনিরুল আলম ভূঁইয়া ও পাকুড়িয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. হায়দার আলী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

অন্যদিকে ১৩ জুলাই সোমবার প্রায় একই সময়ে জেলার শ্রীবরদী উপজেলার খড়িয়াকাজিরচর ইউনিয়নের ভাটি লঙ্গরপাড়া গ্রামের আজিজুর রহমানের মেয়ে সীমা খাতুন (১০) নামে এক শিশু তার বাড়ির পাশের পুকুরে গোসল করতে নেমে এ পুকুরের পানিতে ডুবে মারা গেছে। তাছাড়া রোববার জেলার নালিতাবাড়ি উপজেলার উত্তর রানীগাঁও গ্রামে মায়ের সাথে নানার বাড়ি বেড়াতে এসে রাহাত মিয়া (২) নামে এক শিশু বাড়ির পাশের পুকুরের পানিতে ডুবে মারা গেছে। নিহত রাহাত শেরপুর সদর উপজেলার কামারিয়া ইউনিয়নের ভীমগঞ্জ গ্রামের আব্দুল হাকিমের ছেলে।