নওগাঁর মহাদেবপুরে ২ সন্তানের জনককে অপহরণ করে জোরপূর্বক বিয়ে দেয়ার ঘটনায় আদালতে মামলা দায়ের

প্রকাশিত: ১০:১১ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৭, ২০২০
0Shares
মো.রুবেল হোসেন , নওগাঁ জেলা প্রতনিধি: নওগাঁর মহাদেবপুরে ২ সন্তানের জনককে জোরপূর্বক অপহরণ করে বিয়ে দেয়ার অভিাযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে।
চাঞ্চল্যকর এ ঘটনাটি ঘটেছে মহাদেবপুর উপজেলার বাগডোব নীচপাড়া গ্রামে।
মামলা সূত্রে জানা যায়, মহাদেবপুর উপজেলার বাগডোব নীচপাড়া গ্রামের আহম্মদ আলীর ছেলে মোঃ আমিনুল ইসলাম (৩৩) গত ১৩ জুলাই সোমবার রাত সাড়ে ৮ টার দিকে বাগডোব বাজার থেকে বাসায় ফিরছিলেন। পথিমধ্যে একটি সিএনজি তার পথরোধ করে দাঁড়ায় এবং অপরিচিত একজন ব্যক্তি সিএনজি থেকে নেমে আমিনুল ইসলামকে জোরপূর্বক সিএনজিতে উঠিয়ে নওগাঁ পিটিআই ট্রেনিং সেন্টারের সামনে নিয়ে যায়। এ সময় সিএনজিতে ৩জন অপরিচিত পুরুষ ও ১জন মহিলা যিনি একই গ্রামের খাতিজা খাতুনও ছিলেন।
ওই রাতেই পিটিআই স্কুলের গেটের ভেতর আমিনুল ইসলামকে বসিয়ে ১০/১২ জন মিলে তাকে মারপিট করে গুরুতর আহত করে ও হত্যার হুমকী দিয়ে একই গ্রামের মোঃ খোকন এর কন্যা মোছাঃ খাতিজা খাতুন (১৯) এর সাথে জোরপূর্বক বিয়ে দিয়ে দেয়। ঘটনা বেগতিক দেখে এ সময় প্রথমে একজন কাজী বিয়ে রেজিষ্ট্রি না করে ফিরে চলে গেলেও পরবর্তীতে অন্য একজন কাজী কথিত বিয়ের রেজিষ্টারে ১টি সিঙ্গেল কাগজে জোরপূর্বক সহি নেয়। এছাড়াও উক্ত কাজী ২টি ফাঁকা নন জুডিসিয়াল স্ট্যাম্পেও জোরপূর্বক সহি নেয়।
ঘটনার সময় মেয়ের বাবা বাগডোব নীচপাড়া গ্রামের মৃত মহির উদ্দীনের ছেলে মোঃ খোকন, খোকনের স্ত্রী মোছাঃ রেহেনা, মৃত আঃ রহমানের ছেলে আবু বক্কার সহ অজ্ঞাত ৫/৭জন উপস্থিত ছিলেন।
এ ঘটনায় গত ১৬ জুলাই বৃহস্পতিবার বাগডোব নীচপাড়া গ্রামের মৃত মহির উদ্দীনের ছেলে মোঃ খোকন, খোকনের স্ত্রী মোছাঃ রেহেনা, মেয়ে মোছাঃ খাতিজা খাতুন, মৃত আঃ রহমানের ছেলে আবু বক্কার সহ অজ্ঞাত ৩/৪ জনকে আসামী করে মোঃ আমিনুল ইসলাম বাদী হয়ে আদালতে মামলা দায়ের করেন।