নকলায় ইউএনও’র রক্ত পেয়ে খুশি শিশু জান্নাতুল মাওয়া

প্রকাশিত: ৯:১৫ অপরাহ্ণ, জুলাই ১৮, ২০২০
0Shares

মো. মোশারফ হোসাইন, শেরপুর প্রতিনিধি:

আকাশ আমায় শিক্ষা দিল উদার হতে ভাইরে, কর্মী হবার মন্ত্র আমি বায়ুর কাছে পাইরে, পাহাড় শিখায় তাহার সমান হই যেন ভাই মৌন-মহান; এমন সকল উক্তি বা কবিতার লাইনের প্রতি পূর্ণ আস্থা ও লেখকদের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে বিশ্বের অনেকে সাধারণ জনগনের কাছে মহান ব্যক্তির খ্যাতাব অর্জন করেছেন। আর এ ধারা অব্যাহত আছে বলেই বিশ্বের অনেক মানুষ অন্যের স্বেচ্ছা সহায়তা পেয়ে সুস্থ্যতার সহিত সুন্দর ভাবে জীবন যাপন করছেন।

এমন উদারতার উজ্জল প্রমাণ স্থাপন করেছেন শেরপুর জেলার নকলা উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) জাহিদুর রহমান। ইউএনও স্যারের শরীর থেকে ‘বি’ পজেটিভ রক্ত পেয়ে থ্যালাসেমিয়া রোগী ৬ বছর বয়সী শিশু জান্নাতুল মাওয়ার মুখে হাসি ফুটে ওঠেছে। তার চোখে-মুখে সুস্থতার সহিত বেঁচে থাকার আকুতি। জান্নাতুল মাওয়া দেখছে বেঁচে থাকার স্বপ্ন, আর তার বাবা-মাসহ আত্মীয় স্বজনরা ভাবছেন তার ভবিষ্যত নিয়ে।

শনিবার (১৮ জুলাই) বিকেলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মহোদয় উপজেলার পাঠাকাটা এলাকার স্থানীয় এক প্যাথলজিতে স্বেচ্ছায় উপস্থিত  হয়ে চতুর্থ বারের মতো নিজের শরীর থেকে ‘বি’ পজেটিভ রক্ত দান করেছেন। নকলা হাসপাতালের প্যাথলজি বিভাগে কর্মরত মেডিক্যাল টেকনোলজিস্ট আবু কাউসার বিদ্যুত ইউএনও জাহিদুর রহমান স্যার এর শরীর থেকে রক্ত সংগ্রহ করে শিশু জান্নাতুল মাওয়ার হাতে তুলে দিলে তার চোখে-মুখে তৃপ্তির ছাপ ফুটে ওঠে। এসময় স্বাস্থ্য বিধি মেনে ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে বিডি ক্লিন নকলা টিমের সমন্বয়ক আবদুল্লাহ আল আমিনসহ বিডি ক্লিন নকলা টিম ও ব্লাড ব্যাংক অব নকলার সক্রিয় স্বেচ্ছাসেবী সদস্য ফজলে রাব্বি রাজন, রাকিবুর রহমান রাকিব, সাব্বির আলম প্রান্ত, নাহিদুল ইসলাম রিজন, মইনুল হক অনিম, এ.এস.এম সিফাত, মিনহাজ আল আবেদিন, রাইসুল ইসলাম রিফাত, জান্নাতুল মাওয়ার বাবা মমিন মিয়াসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, শিশু জান্নাতুল মাওয়া উপজেলার নকলা পৌরসভাধীন লাভা এলাকার আনসার ব্যাটেলিয়ান সদস্য মো. মমিন মিয়ার মেয়ে। মমিন মিয়া রাজধানী ঢাকার কুর্মিটোলাতে কর্মরত আছেন। গত বছর (২০১৯ সাল) এর শেষার্ধে ৫ বছর বয়সী শিশু জান্নাতুল মাওয়ার শরীরে থ্যালাসেমিয়া ধরা পড়ে। এরপর থেকে চিকিৎসকের পরামর্শক্রমে গত বছরের সেপ্টেম্বর মাস থেকে প্রতি মাসেই তার শরীরে ব্লাড দিতে হচ্ছে। থ্যালাসেমিয়া রোগী ৬ বছর বয়সী শিশু জান্নাতুল মাওয়ার দ্রুত রোগ মুক্তির জন্য তার বাবা-মা ও নিকট আত্মীয় স্বজনরা সকলের কাছে দোয়া কামনা করেছেন।