শেরপুরে বন্যার পানিতে ডুবে এক শিক্ষার্থীসহ নিহত ২

প্রকাশিত: ১২:৩০ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৪, ২০২০
0Shares

মো. মোশারফ হোসাইন, শেরপুর প্রতিনিধি:

শেরপুর জেলার সদর উপজেলায় বন্যার পানিতে ডুবে বন্যা আক্তার (১৪) নামে অষ্টম শ্রেণীর এক শিক্ষার্থী ও জেলার শ্রীবরদী উপজেলায় আলী আকবর (১৭) নামে এক কিশোর কাঠমিস্ত্রির মৃত্যু হয়েছে। ২৩ জুলাই বৃহস্পতিবার এ মর্মান্তিক ঘটনা দুটি ঘটে।

নিহত শিক্ষার্থী বন্যা আক্তার শেরপুর সদর উপজেলার চরপক্ষীমারী ইউনিয়নের খাসপাড়া গ্রামের জমসেদ আলীর মেয়ে এবং চরশ্রীপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর শিক্ষার্থী ছিলো। নিহতের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, বাড়ির আশে পাশে বন্যার পানি উঠায় বৃহস্পতিবার বিকেলে কয়েকজন বান্ধীর সাথে কলা গাছের ভেলায় চড়ে ঘুরার সময় হঠাৎ ভেলাটি উল্টে তার নিচে চাপা পড়ে। একসময় পানির ¯্রােতে ভেসে গিয়ে ও পানির ঘুর্ণিপাকে পড়ে বন্যা আক্তার ঘটনাস্থলেই মারা যায়।

অন্যদিকে নিহত কিশোর আলী আকবর জেলার শ্রীবরদী পৌরসভার তাতিহাটি নয়াপাড়া এলাকার আবু শামার ছেলে ও পেশায় সে একজন কাঠ মিস্ত্রি ছিলো। নিহতের প্রতিবেশি সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে বন্যার পানিতে ভাসা স্থানীয় মিরকি নদীতে কয়েকজন বন্ধু মিলে সাঁতার কাটার সময় আলী আকবর সবার অজান্তে পানিতে তলিয়ে যায়। বেশ কিছুক্ষণ তাকে নাদেখতে পেয়ে অন্যরা খোঁজাখুঁজি শুরু করে। খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে ৭ থেকে ৮ ফুট পানির নিচ থেকে আলী আকবরকে অজ্ঞান অবস্থায় উদ্ধার করে শ্রীবরদী হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। শেরপুর সদর থানার ও শ্রীবরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)গন ও শ্রীবরদী উপজেলা স্বাস্থ্য ও প.প কর্মকর্তা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।