শেরপুরে বন্যার পানিতে ডুবে যাওয়ার প্রায় ২৮ ঘন্টা পর এক শিক্ষকের মরদেহ উদ্ধার

প্রকাশিত: ১১:১৫ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৭, ২০২০
0Shares

মো. মোশারফ হোসাইন, শেরপুর প্রতিনিধি:

শেরপুর জেলার সদর উপজেলায় বন্যার পানিতে ডুবে নিখোঁজ হওয়ার প্রায় ২৮ ঘন্টা পরে নাঈম (২৫) নামে এক কিন্ডার গার্টেন শিক্ষকের মরদেহ পানির নিচ থেকে উদ্ধার করেছেন ময়মনসিংহ ও শেরপুর জেলার ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের ডুবুরি দল। নাঈম শেরপুর সদর উপজেলার ভাতশালা ইউনিয়নের সাপমারী গ্রামের সায়েদুল ইসলামের ছেলে ও কামাড়িয়া ইউনিয়নের ভীমগঞ্জ এলাকার ডেফোডিল কিন্ডার গার্টেনের বিজ্ঞান বিষয়ের শিক্ষক ছিলেন। সে শিক্ষকতার পাশাপাশি এমএসসি-তে পড়ালেখা করতেন বলে এলাকাবাসীরা জানান।

জানা গেছে, রোববার (২৬ জুলাই) দুপুর একটার দিকে নাঈম বন্যার পানি দেখতে কামাড়িয়া ইউনিয়নের খুনুয়া বাজারের পাশদিয়ে বয়ে যাওয়া মৃগী নদীর পাড় দিয়ে হাটার সময় অসাবধানতা বসত পা পিছলে পানিতে পড়ে ভেসে গিয়ে নিখোঁজ হন। পরে স্থানীয়রা অনেক খোঁজাখুঁজি করে তার কোন হদিস না পেয়ে ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সে খবর দেন। খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে প্রায় ২৮ ঘন্টা পরে ময়মনসিংহ ও শেরপুর জেলার ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের ডুবুরি দল সোমবার (২৭ জুলাই) বিকেল ৫টার সময় পানির নিচ থেকে নাঈমের মরদেহ উদ্ধার করেন।

শেরপুর ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের ষ্টেশন অফিসার সুবল চন্দ্র দেবনাথ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। ডেফোডিল কিন্ডার গার্টেনের বিজ্ঞান বিষয়ের সকল শিক্ষার্থীর প্রিয় নাঈম স্যারের মৃত্যুতে শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসীর মনে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।