ধামরাই মাছ ব্যবসায়ী হত্যাকান্ডে ৫ ডাকাত গ্রেফতার

প্রকাশিত: ৬:৫৪ অপরাহ্ণ, জুলাই ৩০, ২০২০
0Shares

 

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাভার:  ধামরাইয়ে চলন্ত পিকআপ ভ্যান থামিয়ে ছুড়িকাঘাতে কালিপদ রাজবংশী (৪৫) নামের এক মাছ ব্যবসায়ি হত্যার ঘটনায় ডাকাত দলের ৫ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা জেলা উত্তর ডিবি পুলিশ।

বৃহস্পতিবার ( ৩০ জুলাই) দুপুরে সাভার ডিবি অফিস থেকে প্রিজন ভ্যানে করে তাদের আদালতে পাঠানো হয়। এর আগে রাতে ডিবি পুলিশের উপপরিদর্শক আবদুল আজিজের নেতৃত্বে এএসআই জাহিদুল ইসলামসহ ডিবির একটি দল আশুলিয়ার পল্লিবিদ্যুৎ বাসস্ট্যান্ডে মৌমিতা পরিবহণের বাসের ভিতর থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।
গ্রেফতারকৃতরা হলেন- রাজবাড়ি সদর থানার পাকুরিকান্দা গ্রামের রহমান খাঁর ছেলে বশির আহমেদ (৪০), রংপুর জেলার পীরগঞ্জ থানার শ্যামপুর গ্রামের রাজু মিয়ার ছেলে আলমগীর হোসেন (৩৫), সাভারের আশুলিয়ার ভাদাইল এলাকার মৃত আব্দুল মান্নান ভূইয়ার ছেলে বাবু ভূইয়া (৩২), পাবনা জেলার বেড়া থানার মালদাহপাড়া গ্রামের আবু বক্করের ছেলে আক্তার হোসেন (২৩) ওমাগুড়া জেলার শীপুর থানার খরিবাড়িয়া গ্রামের আলাউদ্দিন শেখের ছেলে৷ সাইফুল ইসলাম শাওন (২৪)। তারা সবাই আশুলিয়া ও গাজীপুরের কোনাবাড়ি এলাকায় ভাড়া থেকে যাত্রীবাহী গাড়িতে করে ডাকাতি করতো।

ডিবি পুলিশ জানায়, সিসি টিভি ফুটেজ ও প্রযুক্তি ব্যবহার করে ডাকাতি ও হত্যার সাথে জড়িত পল্লিবিদ্যুতের মৌমিতা পরিবহনের বাস থেকে থেকে বশির আহমেদ, আলমগীর হোসেন ও বাবু ভূইয়াকে গ্রেফতার করা হয়। এসময় ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত একটি হাতুড়ি, দুটি লোহার রড, পাঁচটি মোবাইল ফোন ও নগদ ৯ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়। পরে তাদের দেওয়া তথ্যমতে গাজীপুরের কোনাবাড়ি থেকে আক্তার হোসেন ও সাইফুল ইসলাম শাওনকে গ্রেফতার করা হয়। এসময় তাদের জিজ্ঞাসাবাদে দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে মাছ ব্যবসায়ীকে হত্যার অস্ত্র সুইচ গিয়ার চাকু আজ ভোরে (৩০ জুলাই) ঘটনাস্থলের পাশ থেকে উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত থাকার কথা স্বীকার করেছে আসামিরা। তারা গ্রেফতার হওয়ার রাতেও আবার ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিলো। তারা এই মহাসড়কে আরও কয়েকটি ডাকাতির ঘটনা ঘটিয়েছে বলেও জানা যায়।

এ বিষয়ে ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন সরদার জানান, অভিযুক্ত ডাকাতদের গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকী যারা এই ঘটনা সম্পৃক্ত রয়েছে তাদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

প্রসঙ্গত, গত ২৮ জুলাই ভোর রাতে ঢাকা আরিচা মহাসড়কের ধামরাইয়ের কেলিয়া এলাকায় মাছ ক্রয়ের উদ্দেশ্য ট্রাকে করে আরিচা যাওয়ার সময় ডাকাতের ছুরিকাঘাতে খুন হয় মাছ ব্যবসায়ী কালিপদ রাশবংশী। এসময় আহত হন আরও দুই জন। নিহত কালিদাশ আশুলিয়ার নয়ারহাটের চাকলগ্রামের বাসিন্দা। তিনি মাছ ব্যবসা করে জীবিকা নির্বাহ করতেন।