পটুয়াখালীতে অস্বাভাবিক জোয়ারে শহরসহ নিম্নঞ্চল প্লাবিত

প্রকাশিত: ৪:৪৬ অপরাহ্ণ, আগস্ট ৬, ২০২০
0Shares

পটুয়াখালী প্রতিনিধি:
উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত লঘুচাপ ও মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে পটুয়াখালীতে সোমবার সকাল থেকে থেমে থমে হালকা-মাঝারী ও ভারী বৃষ্টিপাত অব্যাহত রয়েছে। আজ দুপুর পর্যন্ত ৫৫ মিলি মিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করেছে স্থানীয় আবহাওয়া বিভাগ। এছাড়া বৈরী আবহাওয়ার কারনে নদীর পানি বিপদ সীমার ৭ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় উপক‚লীয় এলাকার সকল নিম্নঞ্চল ও চরাঞ্চল ৪/৫ ফুট পানিতে প্লাবিত হয়েছে। পটুয়াখালী শহর রক্ষা বাঁধের স্যুইস  গেট গুলো বিকল হওয়ায় জেয়ারের পানি শহরে প্রবেশ করে পোষ্ট অফিস রোড, নিউ মার্কেট,স্বনির্ভর রোড ও কাঠপট্টি এলাকায় জলাবদ্ধতার সৃস্টি হয়েছে।
এদিকে বেড়িবাধ না থাকায় দু’দফা জোয়ারের ৪ ফুট উচ্চতর পানিতে বাউফলের চন্দ্রদ্বীপ ইউনিয়ন, রাঙ্গাবালীর চরমোন্তাজ ইউনিয়নের মোল্লা গ্রাম, বেড়িবাধ বিধ্বস্ত চরআন্ডা ও কলাপাড়ার লালুয়াসহ ১৯টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। ফলে এসব এলাকার মানুষ চরম ভোগান্তিতে রয়েছে। দু’দফা অস্বাভাবিক জোয়ারে গলাচিপায় ফেরি চলাচল তিন ঘন্টা বন্ধ হয়ে দুই পাড়ে শতাধিক যানবহন আটকে পড়ে।
কুয়াকাটা আলীপুর মৎস্য ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আনসার উদ্দিন মোল্লা জানান,চলমান বৈরী আবহাওয়ার কারনে সমুদ্র বেশ উত্তাল রয়েছে। প্রায় পাঁচ শতাধিক ইলিশ শিকারী ট্রলার গভীর সাগরে অবস্থান করছে।
এদিকে উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় লঘুচাপ সৃষ্টি হয়ে মৌসুমি বায়ুচাপ সক্রিয় থাকায় পায়রা বন্দরকে তিন নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। এছাড়া বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরা ট্রলারসমূহকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে চলাচল করতে বলা হয়েছে।