বাউফলে শিয়ালের মাংস দিয়ে রুটি পিঠার উৎসব

প্রকাশিত: ৬:২৩ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১২, ২০২০
0Shares

এম.নাজিম উদ্দিন,পটুয়াখালী:
পটুয়াখলীর বাউফলে শিয়ালের মাংস দিয়ে রুটি-পিঠার উৎসব করে আলোচনায় এসেছেন একদল যুবক। মঙ্গলবার রাতে উপজেলার কনকদিয়া ইউনিয়নের বৌলতলী চৌরাস্তায় শিয়াল ধরে জবাই করা হয়। পরে চামড়া তুলে টুকরা করে মাংস রুটির আয়োজন করে যুবকরা। সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা গেছে, উপজেলার বৌলতলী গ্রামের ১৬ জন যুবকমিলে মঙ্গলবার বিকালে একটি শিয়াল আটক করে। শিয়ালের মাংস খেলে শরীরের বাতব্যথা ভালো হয়- এমন ধারণা থেকেই তারা শিয়ালটি জবাই করে। শিয়াল জবাইয়ের খবর ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয়রা তা দেখতে ভিড় জমায়।
পরে ওই রাতেই রান্না করে খাওয়ার আয়োজন করে। শিয়ালের মাংস খাওয়ার জন্য ২০ টাকা করে চাঁদা তোলা হয়। স্থানীয় মজিদ মৃধা বাড়িতে ওই শিয়ালের মাংস রান্না করা হয়। আয়োজনের খবর পেয়ে স্থানীয় ২৫-৩০ জন যুবক ছাড়াও বেশ কয়েকজন বয়স্ক ব্যক্তি শিয়ালের মাংস-রুটি খেতে ওই উৎসবে অংশ নেন। রাজীব নামে এক যুবক বলেন, বিকাল ৫ টার দিকে শিয়ালটি ধরা হয়। মুরব্বিরা বলেন- শিয়ালের মাংস খেলে শরীরের বাত ব্যথা ভালো হয়। তাই আমরা নিজেদের মধ্যে চাঁদা তুলে এটি রান্না করে মাংস দিয়ে রুটি খেয়েছি। মাংসের ¯^াদ মোটামুটি ভালোই। শিয়ালের মাংস রান্না করা বাবুর্চি আবু তাহের বলেন, এ উপলক্ষে সাত কেজি আঠা দিয়ে ১০০ রুটি বানানো হয়। অনেক উৎসাহ নিয়েই শিয়াল রান্না করে মাংস-রুটি খেয়েছি। খুব ভালোই লেগেছে খেতে। বিষয়টি জানতে চাইলে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শাহিন হাওলাদার বলেন,ঘটনাটি শুনেছি। তবে কারা করেছে বিষয়টি আমার জানা নেই।
এ প্রসঙ্গে বাউফল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, বন্যপ্রাণি আটক করা বা খাওয়া অপরাধ। বন্যপ্রাণি সংর¶ণ আইনে বন বিভাগ তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পারে।