তাড়াশে রিশান গ্রুপের চেযারম্যানসহ ৩জন গ্রেফতার

প্রকাশিত: ৬:০৩ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৩, ২০২০
0Shares

মহসীন আলী,তাড়াশ প্রতিনিধিঃ

সিরাজগঞ্জের তাড়াশে রিশান গ্রুপের চেয়ারম্যানসহ ৩জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বুধবার বিকাল ৫ টার দিকে রিশান গ্রুপের কার্যালয় থেকে গ্রুপের চেয়ারম্যানসহ আরো ২জনকে গ্রেফতার করেছে বগুড়া ডিবি পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হলেন উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি ও বারুহাস গ্রামের গোলাম মোস্তফার ছেলে রিশান গ্রæপের চেয়ারম্যান ও যুবলীগের সহ সভাপতি রাব্বী শাকিল ওরফে ডিজে শাকিল (৩২), কুসুম্বী গ্রামের আব্দুল মালেকের ছেলে ব্যবস্থাপনা পরিচালক হুমায়ন কবির লিমন ও নওগাঁ জেলার মান্দা উপজেলার গাড়ী অত্র এলাকায় সাইদুর রহমানের ছেলে ম্যানেজার হারুন রশিদ ওরফে সাইফুল ইসলাম (২৬)।
জানা গেছে, ডি জে শাকিল বিভিন্ন সময় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সহ বিভিন্ন পত্রিকায় সরকারী-বে-সরকারী চাকুরীর চমকপদ বিজ্ঞাপন দিয়ে বেকার যুবকদের নিকট থেকে হাতিয়ে নিয়েছেন মোটা অংকের টাকা । এ কাজে তিনি বিশ্বাস অর্জনের জন্য ব্যবহার করতেন বিভিন্ন এমপি,মন্ত্রীদের নাম। সকলের মুখ বন্ধ রাখার জন্য টেলিভিশন, পত্রিকার বিভিন্ন ভুয়া কার্ড সংগ্রহ করে এবং বিভিন্ন অনলাইন পোর্টাল খুলে সম্পাদক সেজে ও হুমায়ন কবিরের পরামর্শে বিভিন্ন ডমিন হোস্টিংয়ের ব্যবসা করে প্রতারনা করতেন এই চক্র। তাছাড়াও স্থানীয় যুবক ছেলেদের তার নিজস্ব ২২টি অনলাইনের কার্ড দিয়ে অপসাংবাদিতকা সৃষ্টি করে হাতিয়ে নিয়েছে প্রচুর টাকা। চেক জালিয়াতি প্রতারনার শিকার ব্যক্তিরা অভিযোগ করলে বগুড়া ডিবি’র সদস্যরা তাকে গ্রেফতার করে।
এ ব্যাপারে বগুড়া ডিবি ইন্সপেক্টর ইমরান মাহমুদ তুহিন বলেন, আমানতউল্লাহ তারেক নামে এক প্রতারিত হওয়া ব্যক্তির করা মামলায় তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। ডিজিটাল আইনে প্রতারণার অভিযোগে রিশান গ্রæপের কার্যালয় থেকে কম্পিউটার,ল্যাপটপ,অফিসের নথিপত্রসহ গ্রæপের চেয়ারম্যান ও আরো ২জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বগুড়া পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঞা জানান, প্রতারক চক্রের ওই তিন সদস্যকে গ্রেপ্তারের সময় তাদের অফিসের কম্পিউটার, কয়েকটি ফাইল এবং ১২ শ’ ১ কোটি ৭২ লাখ ১০ হাজার টাকার ভুয়া চেক জব্দ করা হয়। এ প্রতারক চক্রটি তিন শতাধিক ব্যাংক লোন দেওয়ার নামে বিভিন্ন অনলাইনে ভুয়া বিজ্ঞপ্তি ছাড়ে। তারা সামরিক বাহিনী, বিভিন্ন সরকারি প্রতিষ্টান ও বিভিন্ন প্রিন্ট-ইলেকট্রনি· মিডিয়ার নিয়োগ পত্রসহ আইডি কার্ডের মাধ্যমে সাধারণ মানুষের সাথে প্রতারণা করতেন। তিনি আরো বলেন, প্রতারণার কাজ করতে তারা ২২ টি নিউজ পেপার, ১২টি ফেসবুক আইডি এবং ৩৫টি ফেসবুক পেজ তৈরি করেছে। তাদের আটকের কথা জানতে পেরে প্রতারিত হওয়া প্রায় ২০ জনের মতো সাধারণ মানুষের ফোন কল আসে। বৃহস্পতিবার এদেরকে আদালতে তুলে ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হবে।