নওগাঁর মহাদেবপুরে ঋনের দায়ে আত্মহত্যার মিছিল  মো রুবেল হোসেন 

প্রকাশিত: ১০:৪০ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৩, ২০২০
0Shares

নওগাঁ জেলা প্রতিনিধি :

মাত্র দুই দিনের ব্যবধানে নওগাঁর মহাদেবপুরে ঋণের দায় থেকে বাঁচতে দুই জন আত্মহত্যা করেছেন। এনিয়ে এলাকায় ঋণগ্রস্তদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।
শনিবার দিবাগত রাতে আত্মহত্যা করেন উপজেলার ভীমপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ লক্ষ্মীপুর গ্রামের শ্রী বিনয় চন্দ্র সরদারের ছেলে মিলন সরদার (৩২)। রোববার সকালে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে।

নিহতের পিতা জানান, তার ছেলে বিভিন্ন জনের কাছ থেকে টাকা ধার নিয়ে আর পরিশোধ করতে পারছিল না। পাওনাদারেরা প্রায়ই তাকে নাজেহাল করতো। এরই জের ধরে সকলের অগোচরে বাড়ির পূর্বপার্শ্বে একটি আমগাছের ডালে গলায় রশি দিয়ে আত্মহত্যা করে। সকালে জানতে পেরে নওহাটা ফাঁড়ি পুলিশে খবর দিলে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নওগাঁ মর্গে পাঠায়।
মহাদেবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নজরুল ইসলাম জুয়েল জানান, এ ব্যাপারে থানায় একটি ইউডি মামলা এন্ট্রি করা হয়েছে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা নওহাটা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই জিয়া জানান, আত্মহত্যার কারণ জানা যায়নি।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার উত্তরগ্রাম ইউনিয়নের চককামাল গ্রামের সাইদুল ইসলামের স্ত্রী হাজেরা বিবি (৪৫) এনজিওর কিস্তি পরিশোধ করতে না পেরে গ্যাস বড়ি খেয়ে আত্মহত্যা করেন।

স্থানীয়রা জানান, নিহত হাজেরা বিবি বিভিন্ন এনজিও থেকে ঋণ নিয়ে পরিশোধ করতে পারছিলেন না। এনজিওর কর্মীরা কিস্তি নিতে এলে তিনি পাশের বাড়ীতে পালিয়ে থাকতেন। বৃহস্পতিবার স্থানীয় আশা এনজিওর কর্মী কিস্তি নিতে এলে তিনি পালিয়ে থাকেন। পরে কর্মী চলে গেলে বিকেলে তিনি গ্যাস বড়ি সেবন করেন। বাড়ীর লোকজন জানতে পেরে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তার চিকিৎসা না করে নওগাঁ সদর হাসপাতালে নিয়ে যাবার পরামর্শ দেন। সেখানে নিয়ে যাবার পথে স্বরসতিপুর নামক স্থানে তার মৃত্যু হয়।

এ ব্যাপারেও মহাদেবপুর থানায় একটি ইউডি মামলা এন্ট্রি করা হয়। লাশ ময়না তদন্তের পর দাফন করা হয়।