টাঙ্গাইলের মধুপুরে স্বামীকে কুপিয়ে জখম; স্ত্রীর আত্মহত্যার চেষ্টা

প্রকাশিত: ১১:৫৪ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ৪, ২০২০
 টাঙ্গাইল জেলা প্রতিনিধিঃ টাঙ্গাইলের মধুপুর পৌরসভার দামপাড়ায় রোববার(৪ অক্টোবর) ভোরে পারিবারিক কলহের জের ধরে ঘুমন্ত স্বামী সুমনকে(২৮) কুপিয়ে আহত করে কীটনাশক পানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন স্ত্রী সাবিনা বেগম (২৫)। গুরুতর আহতাবস্থায় স্বামী সুমনকে প্রথমে মুধুপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। পরে এলাকাবাসী স্ত্রী সাবিনাকে আটকে একটি গাছের সাথে বেঁধে রাখে।
সুমন দামপাড়ার আব্দুল মজিদের ছেলে। তিনি ভাড়ায় মোটরসাইকেল চালান। সুমন ও সাবিনার এক মেয়ে (৫) ও আট মাস বয়সী একটি ছেলে রয়েছে। সাবিনা বেশ কিছুদিন ধরে মানসিক ভারসাম্যহীনতার আচরণ করছেন।
স্থানীয়রা জানান, গত ঈদুল আযহার আগে সাবিনার সঙ্গে সুমনের এক ভগ্নিপতি আপত্তিকর আচরণ করেন। এর পর থেকে সাবিনা অসংলগ্ন আচরণ করতে শুরু করেন। এ নিয়ে পরিবারে অশান্তি চলছিল।
রবিবার সকালে ঘুম থেকে উঠার আগে সাবিনা তার স্বামী সুমনের ওপর বটি নিয়ে চড়াও হন। মাথাসহ দেহের বিভিন্নস্থানে ৩-৪টি কোপ দেন তিনি। চিৎকার শুনে পরিবারের লোকজন ও স্থানীয়রা ছুটে এসে সুমানকে উদ্ধার করে। এ সময় স্ত্রী সাবিনা ঘরে রাখা কীটনাশক পানে আত্মহত্যার চেষ্টা করে।
স্থানীয়রা স্বামী সুমনকে উদ্ধার করে প্রথমে মধুপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে অবস্থার অবনতি হওয়ায় চিকিৎসকরা ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পরামর্শ দেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে সাবিনাকে উদ্ধার করে পুলিশ।
মধুপুর থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) তারিক কামাল স্বামীকে কুপিয়ে আহত করার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, সুমনের স্ত্রী সাবিনা কীটনাশক পানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন। পুলিশের সহায়তায় সাবিনাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ বিষয়ে সুমনের ভাই আরশেদ বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। চিকিৎসার পর আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।