নান্দাইলে চেতনা নাশক মিশ্রিত খাবার খেয়ে অতিথিসহ পরিবারের ৫ সদস্য অচেতন 

প্রকাশিত: ৮:২৫ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২২, ২০২০
36 Views
মোহাম্মদ আমিনুল হক বুুলবুল, নান্দাইল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি :
ময়মনসিংহের নান্দাইলে চেতনা নাশক মিশ্রিত খাবার খেয়ে এক পরিবারের তিনজন ও দাওয়াত খেতে আসা আরও দুই মেহমান অচেতন হয়ে পড়েন। এ ঘটনার পর ওই পরিবারের সোনার গয়না ও টাকাভর্তি একটি ব্যাগ খোয়া গেছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে।
 বুধবার ২১ অক্টোবর রাতে উপজেলার সিংদই গ্রামে কাঙ্গুসরকারের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটেছে। আজ বৃহস্পতিবার সকালে অসুস্থ পাঁচজনকে নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।
হাসপাতালে ভর্তিকৃতরা হলেন নিলুফার ইয়াসমীন (৪৫), তাঁর স্বামী মোশাররফ হোসেন (৬০), মেয়ে তানিয়া আক্তার (২৫)  তাঁদের পাশের বাড়ির দুই অতিথি রহুল আমীন (৩৫) ও হাবিবুর রহমান (১৩)।
নিলুফা বলেন, রাতের খাবার খাওয়ার পর তাঁরা ঘুমিয়ে পড়েন। শেষ রাতের দিকে তাঁর স্বামী খাট থেকে পড়ে যান। শব্দ পেয়ে তিনি ঘুম থেকে জেগে স্বামীকে মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখে চিৎকার করে মেয়েকে ডেকে তোলেন। একই সময়ে মেয়েও বমি করতে থাকে। এ সময় তিনিও অসুস্থ হয়ে যান। পরে তাঁর ভাই স্বপন মিয়াকে ডেকে এনে হাসপাতালে ভর্তি হন। তখন জানতে পারেন, তাঁদের বাড়িতে আসা অতিথিরাও অসুস্থ।
কারা এ কাজ করেছে,এ বিষয়ে কিছু বলতে পারছেন না। তবে ঘরে থাকা একটি ব্যাগ খোয়া গেছে বলে জানান নিলুফা। ওই ব্যাগে নগদ ৭০ হাজার টাকা, ৩ জোড়া সোনার কানের দুল ও ১টি গলার (সোনার) হার ছিল। বাড়ি গিয়ে নিশ্চিত হয়ে বলতে পারবেন কী কী খোয়া গেছে।
নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) আকাইদ বলেন, খাবারের সঙ্গে ঘুমের ওষুধজাতীয় কিছু মেশানো হয়ে থাকতে পারে। যে পাঁচজন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন, তাঁদের অবস্থা এখন স্থিতিশীল।
এ বিষয়ে নান্দাইল মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মিজানুর রহমান আকন্দ বলেন,ঘটনার বিষয়ে তিনি অবগত নন। থানায় কেউ অভিযোগ করতে আসেনি।